Joy Jugantor | online newspaper

গাবতলীতে গৃহবধুর মৃত্যু, স্বামী গ্রেফতার 

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৩:২৫, ৭ আগস্ট ২০২২

আপডেট: ১৩:৩১, ৭ আগস্ট ২০২২

গাবতলীতে গৃহবধুর মৃত্যু, স্বামী গ্রেফতার 

মরদেহের প্রতীকী ছবি।

বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় স্বামীর মারধরের শিকার হয়ে এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর স্বামী ইবরাহীম মন্ডলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযোগ উঠেছে, যৌতুকের দাবিতে মীম খাতুন (২৫) নামে ওই গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

শনিবার মধ্যরাতে গাবতলী উপজেলার বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের কালাইহাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের স্বামী ইবরাহীম ওই গ্রামের আব্দুল করিম মন্ডলের ছেলে। নিহত মী একই ইউনিয়নের তল্লাতলা গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে।

মীমের মৃত্যুর পর রোববার সকালে তার বাবা আনোয়ার বাদী হয়ে গাবতলী মডেল থানায় হত্যা মামলা করেন। এরপরই ইবরাহীমকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে সকালে তাকে নিজ গ্রাম থেকে আটক করা হয়েছিল। মামলায় ইবরাহী ও তার বাবাসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলায় বলা হয়েছে, মীম ও ইবরাহীমের সাত বছরের দাম্পত্য জীবন। যৌতুকের দাবিতে প্রায়ই মীমকে নির্যাতর করতেন ইবরাহীম। এমনকি পাঁচ মাস আগে টাকার লোভে মীমের অনুমতি ছাড়াই আরেকটি বিয়ে করেন ইবরাহীম। এ ঘটনার পরপরই ইবরাহীমের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আদালতে মামলা করেন মীম এবং  আলাদা থাকতে শুরু করেন। পরবর্তীতে গত ৪ আগস্ট স্থানীয়ভাবে  সালিস বৈঠকের মাধ্যমে মীমকে বাড়িতে তুলেন। কিন্তু এরপরই মীমের কাছে যৌতুকের এক লাখ টাকা দাবি করেন ইবরাহীম। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে কলহের সৃষ্টি হয়। সবশেষে শনিবার রাতে মীমকে পিটিয়ে ঘরে রেখে তার পরিবারকে খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে ইবরাহীমের বাড়িতে গিয়ে মীমকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মীমকে মৃত ঘোষণা করেন। 

গাবতলী মডেল থানার ওসি মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, মীমকে হত্যার অভিযোগে তার স্বামী ইবরাহীমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।