Joy Jugantor | online newspaper

তিন মাস পর দেখা মিলবে বদলে যাওয়া সাকিবের!

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৫:২৫, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

তিন মাস পর দেখা মিলবে বদলে যাওয়া সাকিবের!

সাকিব আল হাসান

বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করছেন সাকিব আল হাসান। লাইনের বাইরে জাতীয় দলের সতীর্থ মোস্তাফিজুর রহমান। কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে নিজের জার্সি উপরের দিকে টেনে ধরেন সাকিব। এরপর পেটের মেদ দেখাচ্ছেন হাত দিয়ে ধরে ধরে। হয়তো মোস্তাফিজকে বলছিলেন, ‘অনেক বেড়েছে, কমাতে হবে এবার।’

সিলেটে ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপের লিগ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচ চলাকালে সাকিব-মোস্তাফিজের মধ্যে এমন দৃশ্য দেখা যায়। এই টুর্নামেন্টে সাকিব খেলেছেন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনে আর মোস্তাফিজ বিসিবি সাউথ জোনে। 

মেদ কমানোর প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু করে দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। যা দেখা যায় এই ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপেই। ঢাকা থেকে সিলেটে উড়ে এসেছেন সঙ্গে ব্যক্তিগত ট্রেনার নিয়ে। টিম হোটেলে না থেকে ট্রেনারকে নিয়ে থেকেছেন আলাদাভাবে। সাকিবের এই ট্রেনার ক্রিকেটাঙ্গনে পরিচিত মুখ। তিনি দেবাশীষ ঘোষ। বদলে যাওয়া তাসকিন আহমেদের রূপকার হলেন এই দেবাশীষ। কাজ করছেন আরও কয়েকজন ক্রিকেটারকে নিয়ে। 

এখন সাকিবকে ভেঙ্গে-গড়ে ফিট করে তোলার দায়িত্ব পড়েছে দেবাশীষের ওপরই। এই ট্রেনারের কাছে সাকিবকে ফিট করে তোলা যেমন চ্যালেঞ্জ তেমনি একটি স্বপ্নও। 

‘সাকিব আল হাসান বিশ্বের একজন তারকা ক্রিকেটার। তার সঙ্গে কাজ করা অনেকের স্বপ্ন থাকে। আমার দায়িত্ব পড়েছে তাকে ফিট করে তোলার। এটা আমার কাছে স্বপ্নের মতো। তবে বিশাল একটি চ্যালেঞ্জও বটে।’
 
তবে কী প্রক্রিয়ায় কিভাবে ফিট করে তুলবেন, এসব বলতে নারাজ। যেন মুখে কুলুপ এঁটেছেন দেবাশীষ। আসলে আমি এখন প্রক্রিয়া নিয়ে আপনাকে কিছুই বলতে পারবো না। 

দেবাশীষ বলেন অন্য প্রসঙ্গ নিয়ে, ‘মাত্র কাজ শুরু করেছি। সিলেটে ইন্ডিপেন্ডেন্স হলো, সামনে বিপিএল, আফগানিস্তান সিরিজ। সাকিবকে আমার ফিট করে তুলতেই হবে। আপনার কাছ থেকে আমি তিন মাস সময় নিলাম। তারপর বদলে যাওয়া সাকিবের গল্প বলব। কিভাবে কী করেছি সব বলব। তিন মাসে বদলে যাওয়া সাকিবকে দেখবেন।’

‘বাংলাদেশের মানুষ সচেতন না। স্পোর্টসম্যানদের মধ্যেও সচেতনতা খুব একটা দেখা যায় না। সেটা যে কোনো প্রকারের খেলাই হোক না কেন। সাকিব হলের বাংলাদেশের স্বপ্ন। সে ফিট থাকলে আমার আপনার সবার ভালো। আমাকে সেই কাজটি করতে দেন। তখন আপনারাই বাহবা দেবেন’- আরো যোগ করেন দেবাশীষ। 

দেবাশীষকে দেখা যাবে সাকিবের সার্বক্ষণিক সঙ্গী হিসেবে। ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপেও তাই দেখা গেছে। ব্যাটিংয়ের সময় যখন সংগ্রাম করছিলেন তখনো ট্রেনার আলাদাভাবে কাজ করেছেন সাকিবকে নিয়ে। বাঁহাতি অলরাউন্ডারকে দেখা যায়নি পূর্ণ ফিটও। তাই নিজেকে ফিট করার জন্য লেগেছেন উঠে পড়ে। 

ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপে সাকিব খেলেছেন দুই ম্যাচ। ব্যাট হাতে দুই ম্যাচে করেন ৩৩ ও ৩৫। আর বল হাতে নিয়েছেন ৩ উইকেট। খেলার সময়ও ফুটে উঠেছিল সাকিব যে অস্বস্তিবোধ করছেন ফিটনেস নিয়ে। দেবাশীষ ৯০ দিন সময় নিয়েছেন। আসলেই কি দেখা মিলবে বদলে যাওয়া সাকিবের? 

 
Add