Joy Jugantor | online newspaper

সেই ‘অন্তরার’ রূপের দ্যুতি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ১৭ মার্চ ২০২৩

সেই ‘অন্তরার’ রূপের দ্যুতি

ফারিয়া শাহরিন।

ফারিয়া শাহরিন। ২০০৭ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ নির্বাচিত হন। পরে মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংকের ‘কথা দিলাম’ প্যাকেজের বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়ে পরিচিতি লাভ করেন এই অভিনেত্রী।

দুটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন ফারিয়া। একটি ‘দৈনিক তোলপাড়’ ও দ্বিতীয়টি ‘এয়ারকম’। সর্বশেষ কাজল আরেফিন অমি পরিচালিত ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকে অন্তরা চরিত্রে অভিনয় করে আলোচিত হন ফারিয়া শাহরিন। এ অভিনেত্রীর মতে— এই চরিত্রটি তাকে নতুন জীবন দিয়েছে।

শোবিজ অঙ্গনে পা রাখার পর মডেলিং ও অভিনয়ে ফোকাস করেন ফারিয়া। কিন্তু ২০১৫ সালে অভিনয় থেকে সরে যান তিনি। জানা যায়, পারিশ্রমিক নিয়ে এক পরিচালকের কাছ থেকে প্রতারিত হওয়ার কারণে ২০১৫ সালের শেষের দিকে অভিনয় ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দেন।

নিজের পরিকল্পনা অনুযায়ী, দেশ ছাড়েন ফারিয়া শাহরিন। ২০১৬ সালের শুরুর দিকে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমান তিনি। মিডিয়া মার্কেটিং বিষয়ে উচ্চ শিক্ষার জন্য মালয়েশিয়ায় উড়ে যান এই অভিনেত্রী। পড়াশোনার জন্য সেখানে দুই বছর অবস্থান করেন।

২০১৭ সালে দেশে ফিরে একটি একক নাটকে অভিনয় করেন ফারিয়া। ওই সময়ে গণমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন— ‘পড়াশোনা আর অভিমানের কারণে কাজ ছেড়ে দিয়েছিলাম। সবার অনুরোধে আবার অভিনয়ে ফিরলাম। একজনের উপর রাগ করে সবাইকে কেন বঞ্চিত করব?’

তারপর ধীরে ধীরে অভিনয়ে নিয়মিত হন ফারিয়া। ২০১৯ সালে কাজল আরিফিন অমি নির্মাণ করেন টিভি সিরিয়াল ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’। একই বছরের শেষের দিকে টিভিতে সিরিয়ালটির প্রথম সিজনের সম্প্রচার শুরু হয়। পরবর্তীতে বহুল আলোচিত এই নাটকে ‘অন্তরা’ চরিত্রে অভিনয় করেন ফারিয়া।

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকটি ফারিয়ার জীবন বদলে দিয়েছে। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেছিলেন—‘‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে। মানুষের ভালোবাসাকে উপভোগ করতে শিখেছি। আর এই ভালোবাসা আমি নষ্ট করতে চাই না। আমি চাই সবাই আমাকে অন্তরা বলেই ডাকুক। মাসের ৩০ দিন কাজ করতে মন চায় না। সম্মানের সঙ্গে অনেক ধারাবাহিকের কাজ ফিরিয়ে দিই অন্তরাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য। কাজ এখন অনেক কম করি। কিন্তু যে ভালোবাসা পাই তা মাথা পেতে নেই অন্তরা হয়ে। প্রতি মুহূর্তে বাঁচি, উপভোগ করি। আলহামদুলিল্লাহ। এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু হতে পারে!’’