Joy Jugantor | online newspaper

সিংহের নাম নিয়ে আদালতে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ!

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১১:২৩, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সিংহের নাম নিয়ে আদালতে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ!

প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি/সংগৃহীত

ভারতের ত্রিপুরা থেকে পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কে আনা হয়েছে একটি সিংহ ও একটি সিংহীকে। ত্রিপুরার বিশালগড়ের সিপাহিজলা চিড়িয়াখানা থেকে গত ১২ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গল সাফারিতে নিয়ে আসা হয় এই সিংহ দম্পতিকে। তাদের সঙ্গে আনা হয় একজোড়া লেপার্ড ক্যাট ও চশমাবাঁদর বা ম্যাজেস্টিক লাঙ্গুরও (বানর জাতীয় প্রাণী)।

সব ঠিকঠাকই ছিল, কিন্তু সিংহ দম্পতির নাম নিয়েই শুরু হলো ঝামেলা। সিংহের নাম আকবর আর সিংহীর নাম সীতা। এ নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আদালতে গিয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, সিংহীর সীতা নাম নিয়ে ক্ষুব্ধ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। শেষে সিংহীর নাম পাল্টানোর জন্য শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে মামলা দায়ের করে হিন্দু পরিষদ।

মোগল সম্রাট আকবরের আমলে ভারতীয় উপমহাদেশে মুসলিম সাম্রাজ্যের বিস্তার ঘটে। তার শাসনামলকে হিন্দু জাতীয়তাবাদী গ্রুপগুলো দাসত্বের সময় বলে বিবেচনা করে। 

আকবর ও সীতা নামের সিংহ-সিংহীকে একসঙ্গে রাখলে হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে এমন ইঙ্গিত দিয়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কর্মকর্তা অনুপ মণ্ডল বলেন, 'সীতা মোগল সম্রাট আকবরের সঙ্গে থাকতে পারেন না। এরকম কাজে ধর্ম অবমাননা হয় এবং কাজটি সব হিন্দুর ধর্মীয় অনুভূতির ওপর সরাসরি আঘাত।'

মণ্ডল বলেন, আগে বিজেপিশাসিত পার্শ্ববর্তী রাজ্য ত্রিপুরায় থাকার সময় আকবর নামের সিংহটির নাম রাখা হয়েছিল হিন্দু দেবতা রামের নামানুসারে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসশাসিত পশ্চিমবঙ্গে আনার পর সিংহটির নাম বদলে ফেলা হয়। 

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পিটিশনে ধর্মীয় নামে চিড়িয়াখানার প্রাণীদের নাম রাখার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আইনজীবী শুভঙ্কর দত্ত বলেন, 'সরকারি নথিতে সিংহ আর সিংহীর নাম লেখা ছিল প্যানথেরা লায়ন মেল ও ফিমেল। পাশাপাশি তাদের আইডি নম্বর দেওয়া ছিল। কিন্তু এখানে আসার পর তাদের নাম দেওয়া হয়েছে আকবর ও সীতা। তাই সীতা নামের পরিবর্তন চেয়ে আমরা কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে মামলা দায়ের করেছি।'