Joy Jugantor | online newspaper

কুড়াল দিয়ে স্বামীর ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে ফেললেন স্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক 

প্রকাশিত: ১৪:৩৮, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

কুড়াল দিয়ে স্বামীর ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে ফেললেন স্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

বারবার গায়ের রং নিয়ে কটূক্তি করায় স্বামীকে হত্যার পর তার ‘বিশেষ অঙ্গ’ কুড়াল দিয়ে কেটে ফেলেছেন এক স্ত্রী। সোমবার রাতে ভারতের ছত্তিশগড়ের দুর্গ জেলার অমলেশ্বর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, গায়ের রং কালো হওয়ায় স্ত্রীকে কুৎসিত বলে কটূক্তি করতেন স্বামী অনন্ত সোনওয়ানি (৪০)। বারবার কটূক্তির কারণে বিরক্ত হয়ে পড়েন স্ত্রী স্ত্রী সঙ্গীতা সোনওয়ানি। সেই বিরক্তির একপর্যায়ে রূপ নেয় ক্ষোভে। আর এমন ক্ষোভ থেকে স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্ত্রী। তার ‘বিশেষ অঙ্গ’ ও কেটে ফেলা হয়েছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মহকুমা পুলিশ অফিসার দেবাংশ রাঠোর।   

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, অনন্ত সোনওয়ানি তার স্ত্রীকে কুৎসিত বলে ডাকতেন এবং কালো ত্বকের জন্য কটূক্তি করতেন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার দম্পতির মধ্যে ঝগড়া হয়। রোববার রাতেও ঐ দম্পতির মধ্যে ঝগড়া হয়। ক্ষোভের জেরে সঙ্গীতা ঘরে রাখা কুড়াল দিয়ে তার স্বামীকে আক্রমণ করে হত্যা করে। এ সময় ঐ নারী ভুক্তভোগীর বিশেষ অঙ্গও কেটে ফেলেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত সঙ্গীতা ঘটনার পরদিন সকালে তার স্বামীকে কেউ হত্যা করেছে দাবি করে গ্রামবাসীকে বিভ্রান্ত করারও চেষ্টা করেন। কিন্তু পরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের অপরাধ স্বীকার করে। সঙ্গীতা অনন্ত সোনওয়ানির দ্বিতীয় স্ত্রী ছিলেন।