Joy Jugantor | online newspaper

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বুস্টার ডোজে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৫:৫৮, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বুস্টার ডোজে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি

সংগৃহীত ছবি

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার বুস্টার ডোজ ওমিক্রন, বিটা, ডেল্টা, আলফা এবং গামাসহ অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি তৈরি করেতে সক্ষম।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা লিমিটেডের সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গবেষণায় যেসব স্বেচ্ছাসেবী অংশ নিয়েছেন তারা এর আগে ভ্যাক্সিভেরা (অ্যাস্ট্রাজেনেকা) কিংবা এমআরএনএ (ফাইজার, মডার্না)’র কোনো একটির দুই ডোজ নিয়েছিলেন। পরে দেখা যায় বুস্টার ডোজ হিসেবে ভ্যাক্সিভেরা দেওয়ার পর ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে এটি বেশি কার্যকর। দেহে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি প্রস্তুত করে।

অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন গ্রুপের প্রধান অ্যান্ড্রু পোলার্ড বলেছেন, এই গুরুত্বপূর্ণ গবেষণাগুলো দেখায় যে, একই ভ্যাকসিনের দুটি প্রাথমিক ডোজ বা নিষ্ক্রিয় ভ্যাকসিনের পরে অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৃতীয় ডোজ কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে।

গবেষণায় ব্রিটিশ ট্রায়ালে দেখা যায়, ফাইজার এবং মডার্নার প্রাথমিক টিকার পর বুস্টার হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেওয়া হলে শরীরে অ্যান্টিবডি বেড়ে যায়।

তবে এমআরএনএ বা ফাইজার, মডার্নার তৈরি ভ্যাকসিনগুলো যখন বুস্টার ডোজ হিসাবে দেওয়া হয়, তখন অ্যান্টিবডিগুলো সবচেয়ে বেশি কার্যকর।