Joy Jugantor | online newspaper

বাপ-দাদার তিন ফসলি জমিতে ইপিজেড নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি 

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ১৯:১৭, ১৪ মে ২০২২

বাপ-দাদার তিন ফসলি জমিতে ইপিজেড নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি 

উপজেলার কাটামোড় নামকস্থানে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেন তারা

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ইক্ষুখামারের বিরোধপূর্ণ জমিতে ইপিজেড নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবীতে বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছে সাঁওতালরা। শনিবার দুপুর ২টা থেকে ঘন্টাব্যাপি গোবিন্দগঞ্জ-দিনাজপুর আঞ্চলিক সড়কের উপজেলার কাটামোড় নামকস্থানে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেন তারা। সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি পুনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির আয়োজনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। 

সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি পুনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মাস্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন শেখ, সহসাংগঠনিক সম্পাদক সুফল হেমব্রম, সদস্য ময়নুল ইসলাম, আদিবাসী নেত্রী প্রিসিলা মুরমু, তৃষ্ণা মুরমু ও অলিভিয়া প্রমুখ। 

সমাবেশে বক্তারা বলেন, গোবিন্দগঞ্জে ইপিজেড নির্মাণ করার মত সরকারের অনেক জমি পতিত রয়েছে। সেখানে ইপিজেড নির্মাণ করা হোক। এই বিরোধপূর্ণ জমিতেই কেন ইপিজেড করতে হবে? আমাদের এ আন্দোলন বাপ-দাদার জমি উদ্ধারের আন্দোলন। এ আন্দোলন চলছে দীর্ঘদিন ধরে। আমাদের আন্দোলন ইপিজেডের বিরুদ্ধে নয়। এই জমি উদ্ধার করতে গিয়ে তিন সাঁওতালকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। সেই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আজও গ্রেপ্তার করা হয়নি। বিচার হয়নি। সরকার সাঁওতালদের ক্ষতিপূরণ, পুনর্বাসন, ও হত্যার বিচার সহ নানা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু অদ্যবধি তার কোনো কিছুই বাস্তবায়ন হয়নি। একটি চক্র ইপিজেডের নামে বতসবাড়ী থেকে সাঁওতালদের উচ্ছেদের পায়তারা করছে। এই তিন ফসলি জমিতে ফসল ফলিয়ে সাঁওতালদের হাজারো পরিবার জীবিকা নির্বাহ করছে। এদিকে একটি স্বার্থন্বেষী মহল সাঁওতালদের জীবন-জীবিকা নিয়ে নানাবিধ ষড়যন্ত্র করছে। সাঁওতালদের বাপ-দাদার জমি থেকে তাড়িয়ে দিতে নানা ষড়যন্ত্র চলছে।   

বক্তারা বিরোধপূর্ণ জমিতে ইপিজেড নির্মাণ কার্যক্রম বন্ধ, তিন সাঁওতাল হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তার, সাঁওতাল-বাঙালীদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও বাপ-দাদার জমি ফেরতসহ সাতদফা বাস্তবায়নের দাবী জানান। নয়তো বৃহত্তর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে বলে জানান বক্তারা।

এর আগে মাদারপুর জয়পুরপাড়া এলাকায় একটি বিক্ষোভ মিছিল গোবিন্দগঞ্জ-দিনাজপুর আঞ্চলিক সড়কসহ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সমাবেশে অংশ নেন। 

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর চিনিকল কর্তৃপক্ষ পুলিশ সঙ্গে নিয়ে বিরোধপূর্ণ সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ইক্ষুখামারের জমিতে আখ কাটতে গেলে সাঁওতালরা বাধা দেয়। এসময় শ্যামল হেমব্রম, রমেশ টুডু ও মঙ্গল মার্ডি নামে তিন সাঁওতাল পুলিশের গুলিতে মারা যান। এতে আহত হন উভয়পক্ষের অন্তত ৩০জন।  

Add