Joy Jugantor | online newspaper

‘নেইমারের ইনজুরিতে কান্না করেছেন তার মা’

ডেস্ক রির্পোট

প্রকাশিত: ১০:৫০, ২৬ নভেম্বর ২০২২

‘নেইমারের ইনজুরিতে কান্না করেছেন তার মা’

সংগৃহীত ছবি।

চলমান কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে হেক্সা মিশন শুরু করেছে টুর্নামেন্টের হট ফেভারিট ব্রাজিল। রিচার্লিসনের জোড়া গোলে দুর্দান্ত এক জয় পায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লেও স্বস্তিতে নেই সেলেসাওরা। ইনজুরির কারণে গ্রুপ পর্বের বাকী দুই ম্যাচ খেলতে পারবেন না দলের সবচেয়ে বড় তারকা নেইমার।

সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ডান পায়ের গোড়ালির চোটে ম্যাচের ৮০ মিনিটে মাঠ ছাড়েন ব্রাজিলিয়ান তারকা। বেঞ্চে বসে এ সময় নেইমারকে কাঁদতেও দেখা যায়। পরে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, নেইমারের গোড়ালির কাছাকাছি জায়গাটা বেশ বাজেভাবে ফুলে আছে। 

সে সময় শুধু নেইমারই কাঁদেননি। কেঁদেছেন নেইমারের মা’ও। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার পাবলিসিটির দায়িত্বে থাকা বাংলাদেশের ছেলে রবিন মিয়া। 

দেশের একটি গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রবিম মিয়া বলেন, গতকাল ওর (নেইমারের) আব্বা-আম্মা খুব চিন্তিত ছিল। বিশেষ করে তার মা খুব চিন্তিত ছিল। কান্নাকাটি করছিলেন।’

রবিন মিয়া আরও বলেন, তবে এটা তাদের কাছে নরমাল। তারা অভ্যস্ত। সে (নেইমার) অনেকগুলো ইনজুরিতে অনেক বছর ধরে ভুগতেছে। তাই তারা অভ্যস্ত।

সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ফাউলের শিকার হলে গুরুতর আঘাত পান নেইমার। সেই ম্যাচে ৯ বার ফাউলের শিকার হন তিনি।

ব্রাজিল দলের ডাক্তার রদ্রিগো লাসমার জানিয়েছিলেন, নেইমারের পা মচকেছে। তবে এই চোট কত গভীর, সেটা জানতে অপেক্ষা করতে হবে অন্তত ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) রদ্রিগো লাসমার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, 'শুক্রবার বিকেলে নেইমারের এমআরআই করা হয়েছে। গোড়ালিতে মারাত্মকভাবে আঘাত পেয়েছে। আর তাই নিশ্চিতভাবে পরের ম্যাচে খেলতে পারছে না। নেইমার চিকিৎসার ভেতর দিয়ে যাবে এবং বিশ্বকাপে আবার খেলার জন্য তাকে প্রস্তুত করার চেষ্টা করা হবে।’