Joy Jugantor | online newspaper

লোকসভার স্পিকার নির্বাচন আজ

সমঝোতার চেষ্টায় সরকার ও বিরোধী জোট

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১০:১৫, ২৬ জুন ২০২৪

আপডেট: ১০:১৫, ২৬ জুন ২০২৪

সমঝোতার চেষ্টায় সরকার ও বিরোধী জোট

ভারতের লোকসভা ভবন। ফাইল ছবি

অষ্টাদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন বসেছে সোমবার। আজ বুধবার পার্লামেন্টের স্পিকার নির্বাচিত হবে।  স্পিকার নির্বাচন নিয়ে সরকার ও বিরোধী জোট সমঝোতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যদিও ডেপুটি স্পিকার পদ না পেয়ে বিরোধীরাও স্পিকার পদে গতকাল প্রার্থী দিয়েছে। এদিকে গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো এমপিদের শপথ গ্রহণ হয়। এরপর কিছুক্ষণের জন্য পার্লামেন্ট উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।

দ্বিতীয় দফায় লোকসভার স্পিকার হিসেবে এনডিএ জোট সিলমোহর দিয়েছে ওম বিড়লাকে। অন্যদিকে ইন্ডিয়া জোটের পক্ষ থেকে বিড়লার বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন কংগ্রেস এমপি কে সুরেশ। আজ বুধাবার ভোটাভুটির মাধ্যমে নির্বাচিত হবে লোকসভার স্পিকার। উল্লেখ্য, স্বাধীন ভারতে এই প্রথম শীর্ষ সংসদীয় এই পদের জন্য নির্বাচন হবে। যদিও ভারতের কিছু গণমাধ্যম দাবি করেছে, এর আগেও দুই বার স্পিকার পদে নির্বাচন হয়েছে।  

যে কারণে স্পিকার নির্বাচন
স্পিকার এবং ডেপুটি স্পিকার নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার কথা হয়েছিল কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের মধ্যে। স্পিকার নির্বাচনে বিরোধীদের সমর্থন চেয়ে সোমবার কংগ্রেস সভাপতির সঙ্গে কথা বলেন রাজনাথ। এর পর মমতা, অখিলেশ, স্ট্যালিনসহ সমস্ত বিরোধীদের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেন খাড়গে। ডেপুটি স্পিকার পদ দেওয়া হবে বিরোধীদের, এই শর্তে ওম বিড়লাকে সমর্থনে সম্মতি জানানো হয়েছিল ‘ইন্ডিয়া’র তরফে। যদিও শাসক শিবির কথা রাখেনি বলে অভিযোগ বিরোধীদের। এর জেরেই রাজধানীতে জমজমাট শাসক-বিরোধী টানাপড়েন। স্পিকার পদে বিরোধী ‘ইন্ডিয়া’ জোটের পক্ষে গতকাল মনোনয়ন জমা দেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা কে সুরেশ। এনডিএ জোটের পক্ষে মনোনয়ন জমা দেন ওম বিড়লা।

রাহুলের অভিযোগ অস্বীকার রাজনাথের
স্পিকার নির্বাচন নিয়ে রাজনাথ সিংহের বিরুদ্ধে কথা না রাখার অভিযোগ এনেছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। রাহুল বলেছিলেন,  সরকার মনোনীত স্পিকারকে সমর্থনের শর্ত হিসাবে মল্লিকার্জুন খাড়গে বিরোধী শিবির থেকে ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন করতে বলেন। শুনে রাজনাথ বলেন, তিনি এ বিষয়ে পরে ফোন করে জানাবেন। কিন্তু তিনি আর ফোন করেননি। রাহুলের এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন রাজনাথ। প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত তার সঙ্গে তিন বার কথা হয়েছে খাড়গের। যদিও কী বিষয়ে কথা হয়েছে, সে ব্যাপারে সবিস্তার জানাননি কিছু। রাহুল বলেছিলেন, খাড়গেকে ‘ফোন করব’ বলেও না করে অপমান করেছেন রাজনাথ। পালটা এনডিএর তরফে গতকাল বলা হয়, রাজনাথ মঙ্গলবার, স্পিকারদের মনোনয়ন জমা দেওয়ার দিন সকালেই খড়ে্গকে ফোন করেন। কিন্তু তিনি ব্যস্ত থাকায় কথা বলতে পারেননি। তার বদলে কথা বলেন কেসি বেণুগোপাল। কিন্তু তারা তাদের শর্ত একটুও বদলাতে রাজি হননি। স্পিকারকে সমর্থনের আগে ডেপুটি স্পিকারের নাম ঠিক করতে বলেছিল বিরোধী জোট ইন্ডিয়া। এনডিএর দাবি, রাজনাথ তাদের বলেন, নির্বাচনের পরে এ বিষয়ে বসে কথা বলবেন। কিন্তু কংগ্রেস এবং বিরোধীরা সেই শর্তে রাজি হননি।

শপথ গ্রহণে উত্তপ্ত লোকসভা
শপথ গ্রহণের দ্বিতীয় দিনে স্লোগানে উত্তপ্ত হলো লোকসভা। জয় বাংলা, জয় কালী, জয় জগন্নাথ থেকে শুরু করে দলনেতা, নেত্রী, রাজ্য এবং আঞ্চলিক বিভিন্ন বিষয়ে স্লোগান দিলেন ইন্ডিয়া জোটের এমপিরা। লোকসভা থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর গতকাল শপথগ্রহণ করেন তৃণমূল এমপি মহুয়া মৈত্র। তিনি শপথবাক্য পাঠ করতে উঠতেই তুমুল স্লোগান দিতে থাকেন তৃণমূল, সমাজবাদী পার্টি থেকে শুরু করে অন্যান্য বিরোধী দলের এমপিরা। ট্রেজারি বেঞ্চকে লক্ষ্য করে বিরোধীদের কটাক্ষ, ‘এথিক্স কমিটির চেয়ারম্যান কোথায় গেলেন, মহুয়া মৈত্র ফিরে এসেছেন।’ ফৈজাবাদে জয়ী অবদেশ প্রসাদ শপথ নিতে উঠলে টেবিল চাপড়ে অভিনন্দন জানান বিরোধী এমপিরা। হাতে সংবিধান নিয়ে শপথবাক্য পাঠ করেন রাহুল গান্ধী। এমপি হিসেবে শপথগ্রহণ করেছেন অভিষেক ব্যানার্জি। —আনন্দবাজার পত্রিকা ও আজকাল পত্রিকা