Joy Jugantor | online newspaper

আজ বিকেলে এভারকেয়ার হাসপাতালে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৩:১১, ১২ অক্টোবর ২০২১

আজ বিকেলে এভারকেয়ার হাসপাতালে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

ফাইল ছবি।

প্রায় চার মাস পর আবার হাসপাতালে যাচ্ছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তার জন্য রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের ভিআইপি ওয়ার্ডের একটি বেড প্রস্তুত করা হচ্ছে।

খালেদা জিয়াকে মঙ্গলবার বিকেলের দিকে এভারকেয়ারে নেয়া হবে বলে বিএনপি থেকে জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর ফলোআপ করাতে আবার হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে তাকে।

এভারকেয়ার হাসাপাতালের ভিআইপি ওয়ার্ডের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘অ্যাডমিশন বিভাগ থেকে আমাদের কাছে একটি নির্দেশনা এসেছে, বিকেলে খালেদা জিয়া আসবেন। এজন্য ভিআইপি ওয়ার্ডের একটি বেড প্রস্তুতের জন্য আমাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে তিনি ঠিক কখন আসবেন এ ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি।’

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর এভারকেয়ারেই চিকিৎসা নেন খালেদা জিয়া। ৫৩ দিন হাসপাতালে থাকার পর গত ১৯ জুন গুলশানে নিজ বাসা ফিরোজায় ফেরেন তিনি।

গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। শুরুতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজার দ্বিতীয় তলায় একটি রুমে চিকিৎসা চলছিল বিএনপি নেত্রীর।

গত ১৫ এপ্রিল এভারকেয়ার হাসপাতালে সিটি স্ক্যান করানো হয় খালেদা জিয়ার। এরপর ফিরিয়ে আনা হয় গুলশানের বাসভবনে। অবস্থার অবনতি হলে ২৭ এপ্রিল একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বিএনপি প্রধানকে।

৩ মে শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে খালেদা জিয়াকে কেবিন থেকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। বিএনপি থেকে খালেদা জিয়ার করোনামুক্তির খবর দেয়া হয় ৯ মে।

তবে সিসিইউতে থাকা অবস্থায় হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। সুস্থ হওয়ার গত ৩ জুন চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে কেবিন ফিরিয়ে আনা হয়। এর ১৬ দিন পর বাসায় ফেরেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী।

হাসপাতালে নেয়ার কিছুদিন পর খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশ নিয়ে যেতে সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার পরিবার ও দল। বিষয়টি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কয়েক দফা আলোচনা হয় বিএনপি ও খালেদার পরিবারের।

নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদনও করেন খালেদা জিয়া, কিন্তু শেষ পর্যন্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে বিদেশ যেতে অনুমতি দেয়নি সরকার। জানানো হয়, বিএনপি নেত্রী একাধিক দণ্ডিত মামলার আসামি হওয়ায় আইন অনুযায়ী তাকে বিদেশ যেতে অনুমতি দেয়ার সুযোগ নেই।

এর মধ্যে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন খালেদা জিয়া। মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ১৯ জুলাই প্রথম ডোজ টিকা নেয়ার পর একই হাসপাতালে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন ১৮ আগস্ট।

খালেদা জিয়ার বর্তমান শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে বলে দল থেকে জানানো হয়েছে। আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, হাঁটুর জটিলতা ছাড়াও নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা রয়েছে তার। ২০১৭ সালে যুক্তরাজ্যে খালেদা জিয়ার চোখেও অপারেশন করা হয়।

এর মধ্যে খালেদা জিয়ার সাজার মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়িয়েছে সরকার।