Joy Jugantor | online newspaper

অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে খালেদা জিয়াকে, জানালেন ডা. জাহিদ

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২১:১২, ৪ মে ২০২১

অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে খালেদা জিয়াকে, জানালেন ডা. জাহিদ

ছবি: সংগৃহীত।

শ্বাসকষ্ট থাকায় করোনায় আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে। অবস্থা এখন স্থিতিশীল। এরইমধ্যে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার সব রিপোর্ট পর্যবেক্ষণে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের সভা শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার (০৪ মে) রাতে হাসপাতালের বাইরে এসে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন।

বেগম জিয়ার শ্বাসকষ্ট ও সিসিইউতে স্থানান্তর বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবহিত করেন তিনি।

এর আগে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই জানিয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশবাসীর কাছে দোয়া চান। হঠাৎ করেই শ্বাসকষ্ট শুরু হলে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসনকে সোমবার (০৩ মে) দুপুরে কেবিন থেকে করোনারি কেয়ার ইউনিট-সিসিইউতে নেওয়া হয়।

মঙ্গলবার সকালে শ্রমিক দল আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনায় যোগ দিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, চেয়ারপারসনকে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে।

খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেয়ার জন্য সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ফোন করেছেন মির্জা ফখরুল, এমন গুঞ্জন ওঠে সোমবার রাতে। এ ব্যাপারে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে গুঞ্জনটি নাকচ করে দিয়ে তিনি বলেন, বিদেশে চিকিৎসা নেয়ার বিষয়ে কোনো আবেদন বা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তার শারীরিক অবস্থা ফোনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে জানানো হয়েছে।

এরআগে দুপুরে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য মেডিকেল বোর্ড বসে।

এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে। এ ছাড়া আগে থেকেই এফ এম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে চার সদস্যের মেডিকেল টিম তার চিকিৎসা দিচ্ছে। এই দুই মেডিকেল বোর্ড মিলেই হাসপাতালে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা তদারকি করছে।

গত ১০ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা টেস্ট করা হলে ১১ এপ্রিল রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ২৫ এপ্রিল দ্বিতীয় টেস্ট করানো হলে আবারও পজিটিভ রিপোর্ট হলে ২৮ এপ্রিল তাকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।