Joy Jugantor | online newspaper

খাবার কত বার চিবিয়ে খাওয়া উচিত জানেন কি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৬:৩৯, ১০ অক্টোবর ২০২১

খাবার কত বার চিবিয়ে খাওয়া উচিত জানেন কি

প্রতীকী ছবি।

খুব তাড়াহুড়োয় আছেন? ভাবছেন, তাড়াতাড়ি খাবার শেষ করেই ছুটতে হবে? তাই কোনও রকমে খাবার শেষ করে ফেললেন? আর তাতেই ক্ষতি হয় শরীরের। কারণ খাবার ঠিকভাবে না চিবিয়ে খেলে শরীর খারাপ হতে পারে।

চিকিৎসকদের বরাতে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজার এক প্রতিবেদনে এক বার খাবার মুখে নিলে অন্তত কত বার চিবিয়ে নিতে হবে তার হিসেব দিয়েছে। চিকিৎসকদের মতে, অন্তত ৩০ বার চিবিয়ে নিতেই হবে। না হলে খাবার ঠিক করে হজম হবে না। যারা তাড়াহুড়োয় খাবার না চিবিয়ে গিলে নেন, তাদের অ্যাসিডিটির সমস্যা বাড়তে পারে।
 
তবে শুধু সমস্যাই নয়, খাবার ঠিক করে চিবিয়ে না নিলে তার পুষ্টিগুণও শরীর ঠিক করে গ্রহণ করে না। বিশেষ করে খাবারে থাকা ভিটামিন শরীর গ্রহণ করতে পারে না। তা ছাড়া খাবার যত বেশি বার চিবিয়ে নেবেন, ততই এটি ভাঙবে এবং লালারসের সঙ্গে মিশবে। তাতে এর মধ্যে থাকা ক্ষতিকারক কিছু জীবাণুও মারা যাবে। কিন্তু দ্রুত খাবার খাওয়ার তাড়ায় সেটি গিলে নিলে ওই সব জীবাণু পেটে যায়। তাতে বিভিন্ন রোগের আশঙ্কা বাড়ে। 

স্বাস্থ্য-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে দ্রুত খাওয়ার ক্ষতিকর দিকগুলো হল-

প্রয়োজনের বেশি খেয়ে ফেলা : যখন দ্রুত খাওয়া শেষ করছেন এবং কতটুকু খাচ্ছেন সেদিকে নজর দেয়া হচ্ছে না তখন প্রয়োজনের অতিরিক্ত খাওয়া হয়ে যেতে পারে। আর প্রয়োজনের বেশি খাওয়া থেকেই শুরু হবে ওজন বৃদ্ধি ও নানান শারীরিক সমস্যার। দ্রুত খেলে পেট যে ভরে গেছে তার সংকেত দেয়ার পর্যাপ্ত সুযোগ পায় না মস্তিষ্ক, ফলে বেশি খাওয়া হয়ে যায়।

স্থূলতার ঝুঁকি : যারা দ্রুত খান তাদের ‘অবেসিটি’ অর্থাৎ অতিরিক্ত খাওয়ার কারণে স্থূলতার সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যায় আক্রান্ত বেশিরভাগ তাদের পরিণতির জন্য নিজেদের ইচ্ছাশক্তির দুর্বলতা, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, শারীরিক পরিশ্রমের অভাব ইত্যাদিকে দায়ী করেন। তবে দ্রুত খাওয়াও এখানে ভূমিকা রাখে। তাই খাবার খেতে হবে ধীরে, ভালোভাবে চিবিয়ে।

হজমের সমস্যা : দ্রুত খাওয়ার সময় একেবারে অনেকটা খাবার মুখে নেওয়া হয় এবং তা যথেষ্ট পরিমাণে চিবানো হয় না। সঙ্গে পানি কিংবা কোমল পানীয় পান করলে ওই ভালোভাবে না চিবানো খাবারগুলো জোর করে গলা দিয়ে নামিয়ে ফেলা হয়। হজমের প্রতিটি ধাপই গুরুত্বপূর্ণ। আর মুখের ভেতর খাবার চিবানো তার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। তাই এই ধাপ সুসম্পন্ন না হলে হজমে সমস্যা দেখা দেবে, পেট ফুলে থাকবে।
 
ইনসুলিন প্রতিরোধ : দ্রুত খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা হঠাৎ করে বেড়ে যায়, যে কারণে শরীরে তৈরি হতে পারে ‘ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স’। ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স’য়ের কারণেও রক্তে শর্করা মাত্রা বাড়ে, যা মোড় নিতে পারে ডায়াবেটিসের দিকে।