Joy Jugantor | online newspaper

গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে রাশিয়ায় জাপানি দূত আটক, প্রতিশোধ নেবে টোকিও

ডেস্ক রির্পোট

প্রকাশিত: ১২:৫২, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে রাশিয়ায় জাপানি দূত আটক, প্রতিশোধ নেবে টোকিও

প্রতীকী ছবি।

রাশিয়ায় নিযুক্ত জাপানের একজন দূতকে আটক করেছে রুশ কর্তৃপক্ষ। গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় বন্দরনগরী ভ্লাদিভোস্তক থেকে তাকে আটক করে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা এফএসবি।

অবশ্য আটকের পরপরই তাকে রাশিয়া ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় প্রতিশোধ নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছে জাপান। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার নিরাপত্তা সংস্থা এফএসবি সোমবার বলেছে, রাশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় বন্দর শহর ভ্লাদিভোস্তকে সন্দেহভাজন গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে জাপানি এক কনসালকে আটক করা হয়েছে এবং তাকে দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রয়টার্স বলছে, রাশিয়ার এই সিকিউরিটি এজেন্সি কয়েক ঘণ্টা আটক রাখার পর জাপানের ওই কনসালকে ছেড়ে দেয়। জাপানের প্রধান মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিরোকাজু মাতসুনো মঙ্গলবার এক মিডিয়া ব্রিফিংয়ে বলেছেন, জাপানি দূতকে আটকের বিষয়ে টোকিও ‘দৃঢ় প্রতিবাদ’ জানিয়েছে। একইসঙ্গে এ ঘটনায় জাপান প্রতিশোধ নিতে পারে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

এফএসবি বলছে, গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক করা জাপানি কনসালের নাম মোতোকি তাতসুনোরি। রাশিয়ার ফার ইস্ট অঞ্চলে অর্থনৈতিক পরিস্থিতির ওপর পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার প্রভাব সম্পর্কে গোপন তথ্য নেওয়ার সময় তাকে ‘হাতেনাতে’ আটক করা হয়। এরপরই তাকে ‘পারসোনা নন গ্র্যাটা’ ঘোষণা করে রাশিয়া ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

সংস্থাটি জানিয়েছে, কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে জাপানি কনসালের এই কর্মকাণ্ডের জন্য টোকিওর কাছে প্রতিবাদ জানিয়েছে মস্কো।

তবে জাপানের শীর্ষ সরকারি মুখপাত্র মাতসুনো বলেছেন, জাপানের ওই কনসালকে ‘ভীতিকর পদ্ধতিতে’ চোখ বেঁধে আটকে রেখেছে মস্কো। এটি ‘কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে ভিয়েনা কনভেনশনের স্পষ্ট লঙ্ঘন’ বলেও দাবি করেছেন তিনি।

মাতসুনো আরও বলেছেন, ‘আটককৃত কনসাল কোনো ধরনের বেআইনি কার্যকলাপে জড়িত ছিলেন না।’

অন্যদিকে জাপানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাপানে নিযুক্ত রাশিয়ান রাষ্ট্রদূতকে বলেছেন, টোকিওকে ‘সমান পদক্ষেপ নেওয়া দরকার’। একইসঙ্গে মস্কোর কাছ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ক্ষমা চাওয়ার দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

মাতসুনো বলেছেন, আটকের পর মুক্তিপ্রাপ্ত কনসালের স্বাস্থ্যগত অবস্থা নিয়ে কোনো সমস্যা নেই এবং বুধবারের মধ্যে তিনি রাশিয়া ত্যাগ করবেন।