Joy Jugantor | online newspaper

রানি এলিজাবেথকে ভীষণভাবে মিস করব: ট্রুডো

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৩:৩১, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

রানি এলিজাবেথকে ভীষণভাবে মিস করব: ট্রুডো

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো

ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের সিংহাসনে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে আসীন ও বিশ্বের প্রবীণতম রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্য হবে আজ। ব্রিটেনকে দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে শাসন করে আসা এই রানিকে রাজকীয়ভাবেই জানানো হবে বিদায়।

শেষকৃত্যকে সামনে রেখে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বিবিসি রেডিও ৪ এর টুডে প্রোগ্রামে প্রয়াত রানির সাথে তার সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেছেন। ট্রুডো বলেছেন, রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের সঙ্গে ৪০ বছরেরও বেশি আগে প্রথম দেখা করেছিলেন তিনি। সেসময় ট্রুডোর বাবা পিয়েরে ছিলেন কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, ‘আমি তাকে ভীষণভাবে মিস করব, আমি এখনও বিমর্ষ। লন্ডনে আসবো এবং তাকে আর দেখতে পারবো না, এটি এমন একটি বিষয় যা আমাকে বিস্মিত করে তুলছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত সাত বছরে আমি তার সাথে যে সম্পর্কটি গভীর করতে সক্ষম হয়েছি তা অসাধারণ ছিল, কানাডায় কী ঘটছে সেটি তার কাছে মূল্যায়ন করতে সক্ষম হয়েছি। বৈশ্বিক বিভিন্ন বিষয়েও তার সঙ্গে বাস্তব, গভীর, চিন্তাশীল কথোপকথনও করেছি। ইউক্রেনের পরিস্থিতি, বৈশ্বিক নানা চ্যালেঞ্জ, জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে তার চিন্তাশীলতা ও ইতিহাসের আলোকে তার দৃষ্টিভঙ্গি সবসময়ই ছিল অসাধারণ মূল্যবান।’

যুক্তরাজ্যের মতো ব্রিটিশ রাজপরিবারের অধীনে কানাডা এখনও রাজ্য হিসেবেই পরিচালিত হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ট্রুডো বলেন: ‘হ্যাঁ আমি সেটিই সমর্থন করি। আমি মনে করি, আমাদের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় অসাধারণ স্থিতিশীলতা রয়েছে। আমাদের একজন অসাধারণ গভর্নর জেনারেল আছেন যিনি কানাডিয়ানদের সেরা সেবা দিচ্ছেন এবং আমাদের একটি ক্রাউন রয়েছে যা কখনও কখনও আরামদায়ক দূরত্ব থেকেও (কানাডায়) কী ঘটছে তা পর্যবেক্ষণ করছে।’

উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ব্রিটেনের রাজপরিবারের প্রধান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ৯৬ বছর বয়স্ক রানি বার্ধক্যজনিত শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন।

রাজপরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৯ সেপ্টেম্বর রাজধানী লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে এলাকার সেইন্ট পল গির্জায় সমাহিত করা হবে রানির মরদেহ। সমাহিত করার আগে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ব্রিটেনের পার্লামেন্ট ভবনের ওয়েস্ট মিনস্টার হলে তার মরদেহ চারদিনের জন্য রাখা হয়েছে।

সোমবার পর্যন্ত সেখানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শায়িত থাকবেন রানি এলিজাবেথ। এর মধ্যেই রানির মৃত্যুতে ব্রিটেনে ১০ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালন সম্পন্ন হবে এবং প্রয়াত এই রানির শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

শেষকৃত্যে অংশ নিচ্ছেন যেসব বিশ্বনেতা
সারা বিশ্বের প্রায় ৫০০ রাষ্ট্রপ্রধান এবং বিদেশি নেতা আজ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে যোগ দেবেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রোববার লন্ডনে পৌঁছেছেন এবং সেখানে তিনি একটি আনুষ্ঠানিক শোক বইতে স্বাক্ষর করেছেন।

এছাড়া ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ছাড়াও জার্মানির প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্ক-ওয়াল্টার স্টেইনমায়ার, ইতালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও ম্যাটারেলান্ড এবং আইরিশ তাওইসাচ মাইকেল মার্টিন রানির শেষকৃত্যে উপস্থিত থাকবেন।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থনি অ্যালবানিজ এবং নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্নসহ কমনওয়েলথ দেশগুলোর কিছু নেতা লন্ডনে পৌঁছেছেন আগেই। শেষকৃত্যে প্রত্যাশিত অন্যান্য কমনওয়েলথ নেতাদের মধ্যে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে।

ভারতের প্রতিনিধিত্ব করবেন দেশটির প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মু। চীন তার ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়াং কিশানকে রানির শেষকৃত্যে যোগ দেওয়ার জন্য পাঠিয়েছে।