Joy Jugantor | online newspaper

বিয়ের আসরে পুলিশের হানা, জানলা দিয়ে পালালো বউ, সঙ্গে বরও!

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৬:৩০, ২৫ অক্টোবর ২০২১

বিয়ের আসরে পুলিশের হানা, জানলা দিয়ে পালালো বউ, সঙ্গে বরও!

প্রতীকী ছবি।

সিনেমায় প্রায়ই এমন দৃশ্য দেখা যায়। এবার বাস্তবেই দেখা গেল তেমন দৃশ্য। বউ পালালেন, তার পেছন পেছন পালালেন বরও। সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ডায়মন্ড হারবারে। বিয়ের রাতে পুলিশের তাড়া খেয়ে এভাবে জানলা দিয়েই পালিয়ে গেল নাবালিকা নববধূ। সঙ্গে বরও।
 
তবে শেষরক্ষা হয়নি। পুলিশের হাতে ধরা পড়ে ১৪ বছরের নাবালিকা কনে। আর ২০ বছরের বর। যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর সতর্ক করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আর নাবালিকা কনেকে পাঠানো হয়েছে চাইল্ড হোমে।

ওই যুবকের বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপির নিশ্চিন্তপুরে। পাশে নোদাখালির ১৪ বছরের মেয়েটির সঙ্গে তার এক বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মেয়েটি পোয়ালি হাইস্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

এর আগেও একবার ছেলেটির সঙ্গে ঘর বাঁধার স্বপ্ন নিয়ে নিজের বাড়ি ছেড়েছিল কিশোরী। তবে তখন তাকে ফিরিয়ে নিয়ে যায় মা-বাবা। কিন্তু শনিবার আর মেয়েটিকে ফেরানো যায়নি।

জানা যায়, ছেলেটির বড় বোনের বাড়ি ডায়মন্ড হারবার থানা এলাকার লালবাটি গ্রামে। দিদির সাহায্যেই এবার নাবালিকা প্রেমিকাকে স্ত্রী করে ঘরে আনতে চেয়েছিল ওই যুবক।

তাই পরিকল্পনা মতো শনিবার রাতে ধুতি-পাঞ্জাবিতে বরবেশে বেনারসি পরিহিতা কিশোরীকে সে বিয়ে করে লালবাটি গ্রামের চণ্ডী মণ্ডপে। মন্ত্রোচ্চারণ, সিঁদুরদান– সব পর্ব সারা হয়েছিল।

এমনই সময় বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে উপস্থিত হয় ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ। পুলিশকে দেখেই জানলা দিয়ে ঝাঁপ দেয় নববধূ। সঙ্গে বরও। বেশ কিছু দূর চলে যায় তারা।

পাল্টা তাদের ধাওয়া করে পুলিশও। শেষমেশ অবশ্য পুলিশের হাতে ধরা পড়ে নবদম্পতি।

সদ্য বিবাহিত ১৪ বছরের মেয়েটিকে সিনি চাইল্ড লাইনের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। তাকে লক্ষ্মীকান্তপুরের হোমে পাঠানো হয়।

সংস্থাটির কো-অর্ডিনেটর দেবারতি সরকার বলেন, মেয়েটির কাউন্সেলিং চলছে। তাকে আমরা অল্প বয়সে বিয়ে করার ক্ষতিকর দিক বোঝাচ্ছি। আশা করি, তিনি সব বুঝতে পারবে।