Joy Jugantor | online newspaper

তিন ঘণ্টা পর জামিনে মুক্ত হলেন মাহিয়া মাহি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২০:৫০, ১৮ মার্চ ২০২৩

তিন ঘণ্টা পর জামিনে মুক্ত হলেন মাহিয়া মাহি

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে কারাগারে পাঠানোর তিন ঘণ্টা পর জামিন দিয়েছেন আদালত।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পুলিশের দায়ের করা মামলায় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে কারাগারে পাঠানোর তিন ঘণ্টা পর জামিন দিয়েছেন আদালত। তিনি অন্তঃসত্ত্বা বলে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আদালত এ আদেশ দিয়েছেন।

শনিবার বিকেলে গাজীপুর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেন তার জামিন মঞ্জুর করেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার পাশাপাশি মারামারি-ভাঙচুরের অপর মামলায়ও মাহির জামিন মঞ্জুর হয়েছে। ফলে তার মুক্তিতে বাধা নেই।

মাহির আইনজীবী অ্যাডভোকেট আনোয়ার সাদাত সরকার বলেন, ‘আমার মক্কেল আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বলেই মামলা হওয়ার পরও দেশে চলে এসেছেন। তাছাড়া তিনি ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় শারীরিকভাবে অসুস্থ। এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে আদালত মাহিয়া মাহিকে জামিন দিয়েছেন। জামিনের কাগজ কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি আজই মুক্তি পাবেন তিনি।’

এর আগে শনিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে মাহিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি)। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে তোলা হয়। আদালত রিমান্ড নামঞ্জুর করে মাহিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জিএমপি সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে মাহিয়া মাহির গ্রেপ্তারের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেছিলেন মহানগর পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন, মাহিয়া মাহি জমি সংক্রান্ত ঘটনায় পুলিশ বিভাগ, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ব্যাপারে ফেসবুক লাইভে মিথ্যা মন্তব্য করেছেন। তিনি প্রতিপক্ষের ব্যাপারেও মন্তব্য করেছেন। এভাবে একটি প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে তিনি মন্তব্য করার অধিকার রাখেন না।

মোল্যা নজরুল জানান, মাহিয়া মাহির বিরুদ্ধে পুলিশ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছে। তার প্রতিপক্ষের লোকজন জমি সংক্রান্ত ঘটনায় আইন-শৃঙ্খলা অবনতি সংক্রান্ত আরেকটি মামলা করেছে।

গত শুক্রবার রাতে মাহিয়া মাহির প্রতিপক্ষের মামলায় অভিযুক্ত সাজ্জাদ হোসেন সোহাগ (৩৮), আশিকুর রহমান (৩২), ফাহিম হোসেন হৃদয় (২২), জুয়েল রহমান (২৫), জমশের আলী (৪৪), মোস্তাক আহমেদ (২২), খালিদ সাইফুল্লাহ জুলহাস (৩০), সুজন মন্ডল (৩৪) ও মাহবুব হাসান সাব্বিরকে (১৮) গ্রেপ্তার করা হয়।