Joy Jugantor | online newspaper

বহিরাগতদের নিয়ে জায়েদের উৎকণ্ঠা, সমস্যা নেই নিপুণের

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৭:০৬, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

বহিরাগতদের নিয়ে জায়েদের উৎকণ্ঠা, সমস্যা নেই নিপুণের

জায়েদ খান ও নিপুণ

আগামী ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। এ নিয়ে চলচ্চিত্র পাড়ায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আজকাল শিল্পীদের উপস্থিতিতে এফডিসির নীরাবতা ভাঙে। এদিকে বিকাল গড়ালেই এফিডিসিতে বহিরাগতদের আনাগোনার বেড়ে যায়৷

সরেজমিনে দেখা যায়, গোটা এফডিসিতে শিল্পীদের চেয়ে বহিরাগত মানুষের উপস্থিতি বেশি। প্রতিদিন দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করেন শিল্পীরা। কিন্তু বহিরাগতদের উৎপাতে অনেক সিনিয়র শিল্পী বিরক্ত প্রকাশ করেছেন। বহিরাগতদের আনাগোনা নিয়ে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেত্রী সুচরিতা, অঞ্জনা রহমান, সাইমন সাদিকসহ বেশ কয়েকজন শিল্পী। তবে নিপুণ বললেন, ‘সমস্যা নেই’।

কেপিআইভূক্ত এলাকায় বহিরাগতদের প্রবেশে ক্ষুব্ধ শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। তিনি বলেন, ‘শিল্পীদের নির্বাচনে শিল্পীরা আসবেন। আমার দুজন প্রার্থী সুচরিতা এবং অঞ্জনা আপা। গতকাল বিকেলে এফডিসিতে বহিরাগতদের দেখে তারা আর গাড়ি থেকে নামেননি। সেলফি আর ধাক্কাধাক্কি দেখে মনে হচ্ছে, এটা একটা গরুর হাট। নির্বাচনের এখনো ১০ দিন বাকি। এখনই যদি এই অবস্থা হয় তাহলে নির্বাচন করা মুশকিল হয়ে যাবে। তা ছাড়া করোনা সংক্রমণ দিনে দিনে বাড়ছে। সেদিকে আমাদের নজর দিতে হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনার এবং এফডিসি কর্তৃপক্ষের অনুরোধ করছি, তারা যেন বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখেন। এটি শিল্পী সমিতির নির্বাচন; সুতরাং যারা চলচ্চিত্র শিল্পের সঙ্গে যুক্ত শুধু তারাই এফডিসিতে প্রবেশ করুক।’

তবে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী নিপুণ বলছেন ভিন্ন কথা। তার ভাষায়, ‘আমরা কিছুদিন আগে এফডিসির এমডির সঙ্গে কথা বলেছি। বহিরাগতদের নিয়ে তখন আলাপ হয়েছে। এমডি জানান, যেহেতু এফডিসির গেটের সামনে কাজ হচ্ছে, সে ক্ষেত্রে তেমনভাবে বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। তাই যতুটুকু সম্ভব বিষয়টি মানিয়ে নিয়ে কাজ করতে হবে বলে জানান তিনি।’

বহিরাগতদের জন্য কোনো সমস্যা হচ্ছে না নিপুণের। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘বহিরাগতদের জন্য আমার কোনো সমস্যা হচ্ছে না। যারা আসছেন তারা কারো না কারো পরিচিত। তারা হয়তো ভাবছেন, শিল্পী সমিতির নির্বাচন; তাই অনেক শিল্পীদের একসঙ্গে দেখা যাবে। এখানে নেগেটিভ কিছু দেখছি না।’

বহিরাগতদের নিয়ে আপত্তি তুলেছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। তিনি বলেন, ‘গত পরশুদিন আমি রিয়াজ ভাই, নিপুণ আপাসহ আরও কয়েকজন এফডিসির এমডির কাছে গিয়েছিলাম। আমাদের শিল্পী সমিতির নির্বাচন চলছে, কিন্তু আমরা ভোটের আলাপ করতে পারছি না। বরং সেলফির আলাপই বেশি হচ্ছে। কারণ এফডিসিতে এখন প্রচুর বাহিরের লোকজন আসছে। এটা কোনোভাবে বন্ধ করা যায় কি-না। কিন্তু তিনি জানান, এফডিসিতে এই মূহুর্তে কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ চলছে। যে কারণে প্রধান ফটক খোলা রাখতে হচ্ছে। একটু পর পর কমপ্লেক্স নির্মাণের বিভিন্ন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ভর্তি ট্রাক ঢুকছে, এই মূহুর্তে গেট বন্ধ রাখা মুশকিল। তারপরও বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন বলে জানান তিনি।’

এ বিষয়ে কথা বলতে এফডিসির এমডির মুঠোফোনে কল করলেও সাড়া দেননি তিনি।

এবার সভাপতি পদে ইলিয়াস কাঞ্চনের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মিশা সওদাগর। আর সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন নিপুণ। নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন পীরজাদা হারুন। অন্য দুই সদস্য হলেন—জাহিদ হোসেন ও নিশান। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান নির্বাচন করা হয়েছে সোহানুর রহমান সোহানকে। আপিল বোর্ডের দুই সদস্য হলেন মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও মোহাম্মদ হোসেন।

 
Add