Joy Jugantor | online newspaper

মধ্যরাতে জমজমাট রংপুরের কাঁচাবাজার

নওগাঁ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৫:৪৮, ২৪ নভেম্বর ২০২২

মধ্যরাতে জমজমাট রংপুরের কাঁচাবাজার

রংপুর নগরীতে মধ্যরাতের কাঁচাবাজার। ছবি

রংপুর শহরের অধিকাংশ অভিজাত শপিংমল ও মার্কেটগুলোতে যখন সুনসান নীরবতা; দিনের ব্যস্ততম সড়কটিতে যখন সীমিত হয়ে যায় যান চলাচল, তখন সড়কের ওপর সারিবদ্ধ ভ্যানে সাজানো হরেক রকম সবজিপণ্য। ক্রেতাদের অপেক্ষায় থাকেন একদল বিক্রেতা।

সরেজমিন দেখা গেলো, শাক-সবজির এ বাজার শুরুই হয় রাত ৯ টার পর; চলে রাত ১২টা পর্যন্ত। মূলত কিছুটা কম দামে ও টাটকা সবজির আশায় মধ্যরাতে ক্রেতারা আসেন এখানে। নগরীর সুপার মার্কেট ও শাপলা চত্বরের সামনে প্রতিদিন বসে এ বাজার। সিটি বাজার থেকে পায়রা চত্বর এবং শাপলা চত্বরের গ্র্যান্ড হোটেল ব্রিজ থেকে শুরু করে শাপলা সিনেমা হল পর্যন্ত শতাধিক ভ্যানে হরেক রকম সবজির পসরা সাজিয়ে বসেন বিক্রেতারা।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এ বাজারে আসা ক্রেতাদের প্রায় সবাই আশপাশের বিভিন্ন মহল্লার বাসিন্দা। কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে কেনাকাটা করেন তারা। আবার কেউ কেউ সবজি কিনতেই রাত করে বাড়ি থেকে আসেন এ বাজারে।

এখানকার নিয়মিত ক্রেতা ব্যবসায়ী আলমগীর হক জানান, মিনি মার্কেটে নিজের দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে তিনি শাপলা চত্বর অথবা সুপার মার্কেটের সামনে এসে প্রায় প্রতিদিনই সবজি কেনেন। এখানে অন্য বাজারের চেয়ে কম দামে সবজি পাওয়া যায়।

শহরের মুলাটোল আমতলা এলাকার বাসিন্দা লুতফুল কবির জানান, সুপার মার্কেটে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে তিনি এ বাজার থেকে সবজি কেনেন। রাতের এ বাজারে কোনো ঝামেলা নেই। বেশি দরদাম করতেও হয় না। সবজিও টাটকা পাওয়া যায়।
 
বাজার ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন পেশার মানুষ এখান থেকে সবজি কিনছেন। অনেকেই সড়কের পাশে বাজার দেখে যাত্রা থামিয়ে কেনাকাটা করছেন।

বিক্রেতারা জানান, রংপুর শহরের আশপাশের বিভিন্ন গ্রাম থেকে চাষিদের উৎপাদিত সবজি তারা সংগ্রহ করে এনে এ বাজারে বিক্রি করেন। পাশাপাশি নগরের সিটি বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকেও তারা সবজি কিনে এখানে বিক্রি করেন।

রংপুর সদর উপজেলার মোয়েনপুর ইউনিয়নের আশরাফুল ইসলাম বলেন, সিটি বাজারে ব্যবসা করার মতো পুঁজি নেই। তাই স্বল্প পুঁজিতে এভাবে ভ্যানে করে সবজি বিক্রি করে সংসার চালাতে হয়। এখানে দোকান ভাড়া লাগে না। কোনো জামানত দিতে হয় না।

তবে নগরীর শাপলা চত্বর এলাকায় এ ভ্রাম্যমাণ বাজার শুরু হয় বিকেল থেকে। দুপুর গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসতে শুরু করেন সবজি দোকানিরা। পুরোপুরি সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলে ক্রেতারাও এসে ভিড় জমাতে থাকেন এ বাজারে।