Joy Jugantor | online newspaper

নদীতে গোসলে নেমে নিখোঁজ কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:১০, ১০ জুলাই ২০২৪

নদীতে গোসলে নেমে নিখোঁজ কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

ছবি সংগৃহীত

ঠাকুরগাঁওয়ের টাঙ্গন নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ রায়হান ইসলাম (১৯) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১০ জুলাই) সকালে সদর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর শাহাপাড়া এলাকায় নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত সোমবার (৮ জুলাই) দুপুরে গোবিন্দ নগর ইক্ষু খামার সংলগ্ন নদীর ঘাট থেকে নিখোঁজ হয় রায়হান।

ওই কলেজ শিক্ষার্থী জেলা পৌর শহরের গোবিন্দ নগরের মুজিবনগর গ্রামের শহিদ হোসেনের ছেলে ও স্কলার্স কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম লিডার রবিউল ইসলাম বিষয়টি ঢাকা মেইলকে নিশ্চিত করেছেন।

নিখোঁজ হওয়া ওই শিক্ষার্থীর বড় বোন রুমি আক্তার জানান, সোমবার মাকে নিয়ে হাসপাতালে ছিলাম। ভাই পড়াশোনার পাশাপাশি আড়তে কাজ করেন। আমি ভেবেছি সে মহাজনের কাজে আছে। আমার ভাই যে নদীতে গোসলে নেমেছিল এ কথা আগে কেউ জানায়নি আমাদের। পরের দিন ৯ জুলাই সকালে জানতে পারি আমার ভাই দুপুরবেলা তার পাঁচ ছয় জন বন্ধুর সঙ্গে নদীতে নেমে ডুবে গেছে। খবর পেয়ে আমরা ফায়ার সার্ভিসকে কল করি।

এরপর ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ প্রশাসনকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে আসেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ও সদর থানা পুলিশ। ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি না থাকায় রংপুর থেকে আসা ডুবুরি দল আজ সকালে নিখোঁজ হওয়া এলাকাগুলোতে অভিযান শুরু করে।

অভিযানের এক পর্যায়ে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাস্থল থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে পৌর শহরে নিশ্চিন্তপুর একটি আমবাগানের পাশে নদীর ধারে তার লাশ ভাসতে দেখে সেখানকার স্থানীয়রা। এরপর সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সদস্যরা।

ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার রবিউল ইসলাম জানান, সকাল ৭টায় উদ্ধার কাজ শুরু করেন রংপুর থেকে আসা ডুবরি দল ও ফায়ার সার্ভিস। প্রায় দুই ঘণ্টা উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে চারজন ডুবরি। এরই মধ্যে খবর আসে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ ভেসে উঠেছে। পরে সেখান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।