Joy Jugantor | online newspaper

গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী-শ্বাশুড়ি, ননদের যাবজ্জীবন

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৭:০৮, ৮ জুলাই ২০২৪

গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী-শ্বাশুড়ি, ননদের যাবজ্জীবন

প্রতিকী ছবি

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় স্বামী-শ্বাশুড়ি ও ননদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে, তা অনাদায়ে আরও ২ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

সোমবার (৮ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মো: নুরুল ইসলাম এ রায় দেন। রায়ের বিষয়টি ওই আদালতের বেঞ্চ সহকারী তরিকুল ইসলাম স্বপন নিশ্চিত করেছেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- আক্কেলপুর উপজেলার আব্দুল্লাপুর গ্রামের মৃত আ: আব্দুল মতিনের স্ত্রী ও নিহত গৃহবধূর শ্বাশুড়ি মোছা: হাসনা হেনা, নিহতের স্বামী আবুল কামাল আজাদ ও নিহতের ননদ নওগাঁ সদরের নগর কুসুম্বী গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী মোছা: লাজী। রায় প্রদানের সময় সকলেই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের পুলিশের নিরাপত্তায় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, আক্কেলপুরের আব্দুল্লাপুর গ্রামের আবুল কালাম ও লাবনী আক্তার দম্পতির সংসারে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ চলছিল। লাবনী আক্তারকে তার শ্বাশুড়ি, ননদ নির্যাতন করতেন। গত ২০১৬ সালের ২৩ জুন রাতে তারা লাবনীকে নিযার্তন করেন। এক পর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরেরদিন সকালে লাবনী গলায় ফাঁস দিয়ে মারা গেছে বলে তার বাবার বাড়ির লোকজনদের জানায়। তবে লাবনীর বাবার বাড়ির লোকজন নিহতের শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন পায় এবং তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় ওই দিন ২৪ জুন নিহতের ছোট ভাই ওয়াহেদ বাদী হয়ে বোনের স্বামী, শ্বাশুড়ি, জাঁ ও ননদকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। মামলাটি পুলিশ ও সিআইডির কর্মকর্তারা তদন্ত করেন। তদন্ত শেষে গত ২০১৮ সালের ২০ নভেম্বর তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। আর নিহত গৃহবধূর জাঁ-কে মামলা থেকে অব্যাহতি দিতে আদালতের কাছে প্রার্থনা করেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। আদালত তাকে অব্যাহতি দেন। এরপর মামলাটি দীর্ঘ শুনানি হয় এবং বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আজ রায় দেওয়া হয়।