Joy Jugantor | online newspaper

বগুড়ায় শ্রমিক নেতার নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:০৭, ২২ জুন ২০২৪

বগুড়ায় শ্রমিক নেতার নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি

শনিবার বগুড়ায় মানববন্ধন করে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন।

বগুড়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠুর নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তি না দিলে আগামী ৩০ জুনের পর কর্মবিরতীর ডাক শ্রমিক নেতাদের।

শনিবার বেলা ১১টায় শহরের সাতমাথায় জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে মানববন্ধনে এ ঘোষণা দেয়া হয়। 

এতে সভাপতির বক্তব্য রাখেন জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হামিদ মিটুল। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠুর নামে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। তাকে হয়রানিমূলকভাবে এই ঘটনার সাথে জড়ানো হয়েছে। মিঠু কখনও কারো সাথে অন্যায় কাজ করেনি। তিনি সার্বক্ষণিক মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতেন। 

তিনি আরো বলেন, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তদন্ত সাপেক্ষে প্রশাসনকে প্রকৃত খুনিদের খুঁজে বের করতে হবে। এই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। সেই সাথে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা থেকে সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠুর নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। মুক্তি না দিলে আগামী ৩০ জুনের পর আলোচনার মাধ্যমে বগুড়াসহ উত্তরাঞ্চলে কর্মবিরতী ঘোষনা করা হবে।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন বগুড়া বাস-মিনিবাস ও কোচ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এবং পৌর কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম, আন্তঃ জেলা ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল মান্নান মন্ডল, মিঠুর বড় মেয়ে সৈয়দ সানজিদা আহম্মেদ তুলসী, জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন, শহিদুল ইসলাম সওদাগর, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফুর প্রামানিক, জালাল উদ্দিন, শফিকুল ইসলাম, লুৎফর রহমান, আবুল কালাম আজাদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাহবুবর রহমান মানিক, সাজ্জাদ হোসেন, নুর আমিন মন্ডল, জেলা সম্মিলিত শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল মোমিন মন্ডল প্রমুখ।

উল্লেখ্য, এরআগে গত ১৭ জুন বগুড়ায় ঈদুল আজহার রাতে জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে। এদিন রাতে শহরের নিশিন্দারা চকরপাড়ায় মোহাম্মদ শরীফ ও তার মামাতো ভাই মোহাম্মদ রোমানকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে এ ঘটনায় শরীফের মা হেনা বেগম বাদী হয়ে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রধান আসামি বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠু। অন্য আসামিরা হলেন-মিঠুর ভাই ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বগুড়া জেলা পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান সৈয়দ সার্জিল আহম্মেদ টিপু, টিপুর ভায়রা ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি শাহ মেহেদী হাসান হিমু, শেখ সৌরভ, নাঈম হোসেন এবং আজমিন রিফাতসহ ১৩ জন নামীয় ও অজ্ঞাতনামা ১৪ থেকে ১৫ জন। মামলায় মিঠুসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়।