Joy Jugantor | online newspaper

বগুড়ায় ছাত্রলীগের ৫২ নেতার বিরুদ্ধে মামলার ঘটনায় একাংশের প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৬:২০, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

বগুড়ায় ছাত্রলীগের ৫২ নেতার বিরুদ্ধে মামলার ঘটনায় একাংশের প্রতিবাদ

প্রতীকি ছবি।

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগে কাঙ্ক্ষিত পদ না পাওয়া ছয় নেতাসহ ৫২ জনের নামে করা মামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে সংগঠনটি একাংশ। সোমবার (৫ নভেম্বর) রাতে সদ্য অব্যাহতি পাওয়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ওবাইদুল্লাহ সরকার স্বপনের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্যে জাননো হয়। 

এরআগে ৩ ডিসেম্বর রাতে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব সাহা ও সাধারণ সম্পাদক আল-মাহিদুল জয়ের নেতৃত্বে ২০ থেকে ৩০ মোটরসাইকেলে ৫০ জন নেতাকর্মী আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষর সাথে দেখা করতে যান। 

এর কিছুক্ষণ পরেই জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির সহ-সভাপতি তৌহিদুর রহমান ও যুগ্ম সম্পাদক মাহাফুজারের নেতৃত্বে হামলার ঘটনা ঘটে বলে সংগঠনের নব-নির্বাচিত সভাপতি সজীব সাহা দাবি করেন। 

তিনি আরও দাবি করেন, হামলায় সরকারি শাহ সুলতান কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকু রহমান আতিক ও  শহর ছাত্রলীগের সভাপতি মনিরুজ্জামান সাব্বিরসহ সাত নেতাকর্মী আহত হন। এ সময় অন্তত ১৫ টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। 

এই ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব সাহা বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় ৪ ডিসেম্বর রাতে ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ ৫২ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন। মামলায় জেলা ছাত্রলীগের কাঙ্ক্ষিত পদ না পাওয়ার দাবিতে আন্দোলনরত পদধারী ছয় পদধারী নেতাকেও অভিযুক্ত করা হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়, বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের নব-গঠিত কমিটির সহ-সভাপতি তৌহিদুর রহমান তৌহিদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাফুজারসহ ৫২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। এছাড়াও ঘটনার দিন ৩ ডিসেম্বর রাতে ছাত্রলীগ নেতা মাহাফুজারের ছাত্রবাসে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। 

বিজ্ঞাপ্তিতে ছাত্রলীগ নেতাদের একাংশ জানায়, 'বগুড়ার ছাত্রলীগকে ধ্বংস করতে একটি কুচক্রি মহল অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের টার্গেট বিএনপি-জামাত নয় বরং আওয়ামী লীগ পরিবারকে ধ্বংস করা। এজন্য অগ্রহণযোগ্য ও দুর্বল দু'জনকে জেলা ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ দেওয়া হয়েছে। যাতে বিএনপি-জামাতের সুবিধা হয়।'
একাংশের ছাত্রলীগ নেতারা ছাত্রলীগ সভাপতির করা মামলাকে ন্যাক্কারজনক ঘটনা দাবি করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন করেন। একই সাথে ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজার রহমানের ছাত্রাবাসে ভাংচুর এবং অগ্নিসংযোগের ঘটনায় প্রশাসনের আইনগত সহায়তা কামনা করেন। 

বগুড়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য অব্যাহতি পওয়া সভাপতি ওবাইদুল্লাহ সরকার স্বপন, সাধারণ সম্পাদক শামীম হোসেন, অব্যাহতি পওয়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন বুলবুল, কাহালু উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সৌগির আহমেদ রিতু, নন্দীগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শুভ আহম্মেদ, শাজাহানপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রঞ্জু, শেরপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা, শিবগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুম পারভেজ মুকুল, ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাকারিয়া খন্দকার, অব্যাহতি পাওয়া শহর ছাত্রলীগের সভাপতি সুজিত কুমার দাস, সরকারি শাহ সুলতান কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর রাব্বী স্বাধীন, অব্যাহতি পাওয়া গাবতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফুর বিপ্লব, দুপচাঁচিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম, সারিয়াকান্দি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক দুলাল হোসেন, নাজির আক্তার সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি  সুমন, সরকারি সান্তাহার ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজন কুমার সম্মতি জানিয়ে এ বিবৃতি জ্ঞাপন করেন।