Joy Jugantor | online newspaper

বগুড়ায় সারের দাবিতে বিক্ষুব্ধ কৃষক, সড়ক অবরোধ

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১২:৪৯, ১৭ আগস্ট ২০২২

বগুড়ায় সারের দাবিতে বিক্ষুব্ধ কৃষক, সড়ক অবরোধ

বগুড়ায় সারের দাবিতে বিক্ষুব্ধ কৃষক, সড়ক অবরোধ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ধুনট ইউনিয়নের কৃষকেরা চাহিদামতো সারের দাবিতে সড়ক অবরোধ করেছেন। 

বুধবার বেলা সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত তারা ধুনট-বগুড়া বাইপাস সড়ক অবরোধ করে রাখেন। ১ ঘ›ণ্টার সড়ক অবরোধের কারণে উভয় পাশের্^ দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। 

ধুনট-বগুড়া বাইপাস সড়কের ধুনট খাদ্য গুদাম এলাকায় মেসার্স এশিয়া এন্টারপ্রাইজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। 

মেসার্স এশিয়া এন্টারপ্রাইজ ধুনট ইউনিয়নের বিসিআইসি সার ডিলার। সংবাদ পেয়ে ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। 

বিক্ষুব্ধ কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত দুইদিন তারা সার ডিলার পয়েন্টে এসে ফিরে গেছেন। আজ সার নিতে এসে জানতে পারেন তাদের চাহিদামতো সার দেওয়া হবে না। এছাড়া মাত্র ৩টি ওয়ার্ডের কৃষকদের সার দেওয়া হবে। বিষয়টি নিয়ে তারা ক্ষুব্ধ হয়ে গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে রাখেন।

ধুনট উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ধুনট উপজেলা আগষ্ট মাসের জন্য সরকারিভাবে ৮৯০ মেট্রিকটন ইউরিয়া সার বরাদ্দ রয়েছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ১জন করে বিসিআইডি সার ডিলার রয়েছেন। বরাদ্দ পাওয়া সার ডিলারদের মাঝে ভাগ করে দেয়া হয়েছে।

কৃষি অফিসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিদিন একটি ইউনিয়নের ৩টি করে ওয়ার্ডের কৃষকদের সার দেওয়া হবে।  বুধবার সকাল থেকে ধুনট ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের কৃষকদের মাঝে জমির পরিমান অনুযায়ী দুইজন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তার উপস্থিতিতে ইউরিয়া সার বিক্রি করার কথা ছিল। কিন্তু সার বিক্রি শুরু করার আগেই কৃষকের ক্ষুব্ধ হয়ে সড়ক অবরোধ করেন।

ধুনট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জান বলেন, ইউনিয়নের সব ওয়ার্ড থেকে কৃষকের আসার কারণে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছিল। পরে পুলিশের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে। আগামী ২১ আগস্ট পর্যন্ত কৃষকদের কাছে সার বিক্রি করা হবে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে কৃষকদের শান্ত করে সার বিক্রি শুরু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল ওয়ার্ডের কৃষকদের সার দেওয়া হবে। এছাড়াও উপজেলায় নতুন করে সার বরাদ্দের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে।