Joy Jugantor | online newspaper

ধুনটের যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার 

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৩:২১, ১৩ আগস্ট ২০২২

ধুনটের যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার 

গ্রেফতারের প্রতীকী ছবি।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে মামলায় স্বামী নজরুল ইসলামকে (৩০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

শনিবার দুপুরে তাকে ধুনট থানা থেকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া নজরুল ইসলাম ওই উপজেলার কালারপাড়া ইউনিয়নের নিত্তিপোতা গ্রামের রমজান আলীর ছেলে। শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, নজরুল ইসলামের প্রায় ১৫ বছর আগে উপজেলার বিলচাপড়ী গ্রামের আকরাম হোসেনের মেয়ে শাহানাজ পারভীনকে (২৮) বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের  দুই ছেলে সন্তান রয়েছে।
এ অবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে শাহানাজকে তার বাবার বাড়ি থেকে ২ লাখ টাকা যৌতুক এনে দিতে বলে নজরুল। 
কিন্ত শাহানাজ তার হতদরিদ্র বাবার কাছ থেকে যৌতুকের ২ লাখ টাকা এনে দিতে অস্বীকৃতি জানান। এ কারণে প্রায়ই স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে থাকেন শাহানাজ।

তবে গত ৫ মে  শাহানাজ স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেয়ে সন্তানদের নিয়ে বাবার বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে বসবাস করতে থাকেন। কয়েকদিন আগে লোকমুখে জানতে পারেন তার স্বামী নজরুল ইসলাম দ্বিতীয় বিয়ে করেছে। এ কারণে গত ১১ আগষ্ট স্বামীর বাড়ি যান শাহানাজ। শাহানাজকে দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে নজরুল। একপর্যায়ে নজরুল শাহানাজকে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। আহত শাহানাজ চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। 

এ ঘটনায় শাহানাজ পারভীন বাদি হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে স্বামীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। রাতেই থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘যৌতুকের টাকা দাবি করিনি। তবে দ্বিতীয় বিয়ে মেনে না নেওয়ায় কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে স্ত্রীকে চড় থাপ্পড় মেরেছি।’ 

ধুনট থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অমিত কুমার বিশ^াস এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।