Joy Jugantor | online newspaper

শেরপুরে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৭:৪৪, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ১৮:১৫, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

শেরপুরে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

লাশ ঘিরে স্বজনদের আহাজারী।

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় লিজা খাতুন নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

রোববার দুপুরে উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের কাফুরা পূর্বপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

মৃত লিজা ঐ ইউনিয়নের ভাতারিয়া গ্রামের জহুরুল ইসলামের মেয়ে। এবং কাফুরা পূর্বপাড়া গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী। সোহেল রানা পেশায় লোকাল বাসের কন্ডাক্টর।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তিন বছর আগে সোহেল ও লিজার বিয়ে হয়। তবে সোহেলের এটি দ্বিতীয় বিয়ে। আগের স্ত্রীর সঙ্গে সোহেলের ছাড়াছাড়ি হয়। পরে লিজাকে বিয়ে করেন সোহেল। সোহেল ও লিজার সংসারে ১০ মাস বয়সী রাহিম নামে এক ছেলে সন্তান রয়েছে।  

লিজাকে তার স্বামী সোহেল প্রায়ই বাবার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসতে চাপ দিতেন। লিজা বাবার বাড়ি থেকে বাধ্য হয়ে টাকা নিয়ে আসতেন এবং সংসারে খরচ করতেন। এ বিষয় নিয়েও তারা মাঝে মধ্যেই বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হতেন।

শনিবার রাতে সোহেল তার স্ত্রী লিজার কাছে ৭০ টাকা দেন। রোববার সকালে সেই টাকা ফেরত চান সোহেল। কিন্তু লিজা তাকে বলেন টাকা খরচ হয়ে গেছে। টাকা খরচের কথা শুনেই লিজাকে মারধর শুরু করেন সোহেল। পরে দুপুরে লিজার ঘর থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। লিজার দেহ ঘরের তীরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ছিল। এবং ওই ঘরের খাটের ওপরই বসেছিলেন সোহেল। পরে স্থানীয়দের দেয়া খবরে পুলিশ এসে তার লাশ উদ্ধার করে। এবং সোহেলকে আটক করে। এটি হত্যা নাকি হত্যা আত্মহত্যা বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা।

শেরপুর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম জানান, গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। মৃতের স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। অভিযোগ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Add