Joy Jugantor | online newspaper

ভিসেরা প্রতিবেদন

ঠাকুরগাঁওয়ের মিলিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:৩১, ২৫ অক্টোবর ২০২১

ঠাকুরগাঁওয়ের মিলিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়

ফাইল ছবি।

ঠাকুরগাঁওয়ের আলোচিত গৃহবধূ মিলি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ভিসেরা প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। তাকে আগুনে পুড়িয়ে ও পিটিয়ে হত্যার বিষয়টি ভিসেরা প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। সোমবার সিআইডি’র মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুর রজ্জাক খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, মিলি চক্রবর্তীর মত্যুর ভিসেরা রিপোর্ট আমাদের হাতে এসেছে এবং এতে তাকে হত্যাকাণ্ডের সন্দেহটি আমাদের কাছে স্পষ্ট। আমরা সে অনুযায়ী তদন্ত পরিচালনা করবো। এর আগে এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত মিলি’র ছেলে অর্ক রায় রাহুল ও ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আমিনুল ইসলাম সোহাগ বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছে। 

উল্লেখ্য, গত ৮ জুলাই সকালে শহরের মোহাম্মদ আলী সড়কে স্থানীয় বাসিন্দা সমীর কুমারের বাসার পাশে একটি গলি থেকে তার স্ত্রী মিলি চক্রবর্তীর অর্ধ পোড়ানো মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই সময় বাসার একটি ডায়রী খাতায় “স্বেচ্ছায় আত্মহত্যা ও তাঁর মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়” লেখা মৃত গৃহবধূর হাতে লেখা একটি ডকুমেন্ট উদ্ধার হলেও এ ঘটনাটি নিয়ে শহরজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। 

এ নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোন মামলা বা অভিযোগ করা না হলেও এর দুইদিন পর ১০ জুলাই পুলিশ বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। গত ৫ আগষ্ট মামলাটি সিআইডির কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে মিলি চক্রবর্তীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আইডিতে অপ্রীতিকর মেসেজ নিয়ে ঝামেলার বিষয় প্রকাশ হলে এতে মিলির ছেলে ও আমিনুল ইসলাম সোহাগের জড়িত থাকার বিষয়টি উঠে আসে। ওই মেসেজের জেরেই মিলিকে হত্যা করা হতে পারে বলে ধারণা পুলিশের।