Joy Jugantor | online newspaper

বগুড়ায় সর্বাত্মক কঠোর বিধি-নিষেধ, থাকবে সাতদিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:৪২, ১৯ জুন ২০২১

আপডেট: ১৬:৪৩, ১৯ জুন ২০২১

বগুড়ায় সর্বাত্মক কঠোর বিধি-নিষেধ, থাকবে সাতদিন

বগুড়ার মানচিত্র।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে বেড়ে যাওয়ায় বগুড়া পৌরসভাসহ সদর এলাকায় আজ শনিবার রাত ১২টা থেকে সর্বাত্মক কঠোর বিধি-নিষেধ কার্যকর হতে যাচ্ছে।

শনিবার সকালেই এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. জিয়াউল হক স্বাক্ষরিত  প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। আগামী ২৬ জুন রাত ১২ টা পর্যন্ত এ বিধি-নিষেধ কার্যকর থাকবে।

কঠোর বিধি-নিষেধগুলো হলো

ক. সকল ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিংমল, মার্কেট, দোকান বন্ধ থাকবে। তবে ওষুধ, কাঁচাবাজার, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকারের সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠান বিধি-নিষেধের আওতা বহির্ভূত থাকবে।

খ. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাসমূহ সকাল ৬ থেকে রাত ১০ রাত ১০ পর্যন্ত খাদ্য বিক্রয়-সরবরাহ করতে পারবে।

গ. বিধি-নিষেধ চলাকালীন বাসসহ কোন প্রকার যানবাহন বগুড়া শহরে প্রবেশ করতে এবং শহরের বাহিরে যেতে পারবে না। দূরপাল্লার যানবাহন শুধু হাইওয়ে ব্যবহার করবে এবং সর্বাত্মক কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপিত এলাকায় সকল প্রকার যান চলঅচল বন্ধ থাকবে। তবে জরুরী সেবা প্রদান কারী পরিবহন,রোগী পরিবহনকারী অ্যাম্বুলেন্স, স্বাস্থ্যসেবার সাথে সম্পর্কিত পরিবহন ও ব্যক্তিগত এবং কৃষি/খাদ্য সামগ্রী পরিবহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে।

ঘ. জনসমাবেশ হয় এ ধরণের সামাজিক (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, জন্মদিন,বনভোজন, পার্টি ইত্যাদি) রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানসহ সকল ধরণের গণজমায়েত বন্ধ থাকবে।

ঙ. বগুড়া শহরের সকল সাপ্তাহিক হাট বন্ধ থাকবে।

চ. সকল পর্যটন, রিসোর্ট,কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

ছ. সকল ধরণের চা-এর দোকান বন্ধ থাকবে এবং ফুটপাতে কোন প্রকার দোকান বসানো যাবে না।

ঝ. সরকারের রাজস্ব আদায়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত সকল দপ্তর/সংস্থাসমূহ জরুরী পরিসেবার আওতাভুক্ত হবে।

ঞ. সকল ধরণের সরবরাহ ব্যবস্থাপনা সচল থাকবে।

ট. স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে জুম্মার নামাযসহ প্রতি ওয়াক্ত নামাযে সামাজিক দূরত্ব মেনে মুসল্লি অংশ গ্রহণ করতে পারবেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুসরণ করে অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনারয়েও দূরত্ব মেনে উপাসনা করা যাবে।

ঠ. উপর্যুক্ত বিধি-নিষেধ অমান্য করলে সংক্রমণ রোগ (প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ ও নিমূল) আইন,২০১৮সহ প্রচলিত অন্যান্য আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।