Joy Jugantor | online newspaper

তদন্ত কমিটি গঠন 

রথযাত্রায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টের ঘটনায় আহত দুইজনকে ঢাকায় স্থানান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:০৮, ৮ জুলাই ২০২৪

আপডেট: ১৯:৩০, ৮ জুলাই ২০২৪

রথযাত্রায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টের ঘটনায় আহত দুইজনকে ঢাকায় স্থানান্তর

ছবি সংগৃহীত

বগুড়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব রথযাত্রায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত দুইজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। গত রবিবার রাত ১২টার দিকে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়। 

গুরুতর আহত দুইজন হলেন-বগুড়া সদরের দত্তবাড়ি এলাকার মৃত ক্ষীরোদ চন্দ্রের ছেলে চন্দন দেব (৬৮) ও সদরের পালপাড়ার মৃত পাচকুড়ি পালের ছেলে শ্রী রঞ্জন পাল (৫২)। প্রথমে তারা বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আব্দুল ওয়াদুদ জানান, দুর্ঘটনার পরে হাসপাতালে ৩৮ জন ভর্তি হয়েছিলেন। এর মধে দুই জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। তাদের একজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও অপরজনকে শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটে স্থানান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে শজিমেক হাসপাতালে ২৮ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে, ২২ জন নারী এবং ৬ জন পুরুষ। এরা সবাই ঝুঁকিমুক্ত। মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩জন। এছাড়া সকালে বাকিদের রিলিজ দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে দুই হাসপাতালে ৩১ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এদিকে রথযাত্রায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বগুড়া জেলা প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ইমরুল কায়েসকে প্রধান করে পুলিশ, নেসকো, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল সার্জনের প্রতিনিধির সমন্বয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিবে বলে জানানো হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, রথযাত্রার দুর্ঘটনা অনুসন্ধানে গতকাল সোমবার থেকে তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। রথযাত্রায় পাঁচজনের মরদেহ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনপ্রতি ২৫ হাজার টাকার অনুদান দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় আহতরা বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন চন্দন দেব ও রঞ্জন পালকে রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।