Joy Jugantor | online newspaper

সব আমার মায়ের দোষ লিখে এক ওড়নায় ঝুলল নবদম্পতি

ডেস্ক রির্পোট

প্রকাশিত: ২০:৩৫, ২৪ নভেম্বর ২০২২

সব আমার মায়ের দোষ লিখে এক ওড়নায় ঝুলল নবদম্পতি

সংগৃহীত ছবি।

প্রেমের সম্পর্কের পর মাত্র দুই মাস আগে বিয়ে; কিন্তু মেনে নেয়নি মেয়ের পরিবার। মেয়েটি মেহেদি দিয়ে নিজের হাতে লিখেছে- ‘সব আমার মায়ের দোষ, আমরা চলে যাচ্ছি’।

বৃহস্পতিবার সকালে ওই নবদম্পতির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কালীচরণপুর ইউনিয়নের হাটবাকুয়া গ্রামের মাঠে। নবদম্পতি ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তারা হলেন- সদর উপজেলার তালতলা হরিপুর গ্রামের চুনু শেখের ছেলে রমজান হোসেন ওরফে রুজিব শেখ (২০) ও তার স্ত্রী হরিণাকুণ্ডু উপজেলার বিন্নি গ্রামের গোলাম হোসেনের মেয়ে মুক্তা খাতুন (১৮)। মাত্র দুই মাস আগে বিয়ে করেছিলেন তারা।

এ বিষয়ে হাটগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের এসআই বিল্লাল হোসেন জানান, ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে গাছে ঝুলে স্বামী ও স্ত্রী একসঙ্গে আত্মহত্যা করেছেন। মাত্র দুই মাস আগে বিয়ে করেন তারা। মেয়ের পরিবারের লোকজন তাদের বিয়ে মেনে নেয়নি। বৃহস্পতিবার মুক্তা খাতুনকে ছেলের বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। এ কারণেই তারা আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। মেয়েটি তার বাম হাতে মেহেদি দিয়ে লিখেছে- ‘সব আমার মায়ের দোষ, আমরা চলে যাচ্ছি’।

স্থানীয়রা জানান, সকালে ঝুলন্ত জোড়া লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে দম্পতির মরদেহ দেখতে শত শত নারী-পুরুষ সদর উপজেলার কালীচরণপুর ইউনিয়নের হাটবাকুয়া গ্রামের মাঠে ভিড় করেন। পরে পুলিশ এসে তাদের লাশ দুইটি উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যায়।