Joy Jugantor | online newspaper

গোবিন্দগঞ্জে দুর্বৃত্তদের দেয়া বিষে বিনষ্ট ২৫ লাখ টাকার মাছ

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ১৫:১৮, ১৯ আগস্ট ২০২২

গোবিন্দগঞ্জে দুর্বৃত্তদের দেয়া বিষে বিনষ্ট ২৫ লাখ টাকার মাছ

বিষ প্রয়োগে মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে স্থানীয়রা পুকুরে মরা মাছ ভাসতে দেখা যায়। এর আগে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় উপজেলার শাখাহার ইউনিয়নের আলীগ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মাছচাষীর দাবি, এতে তার প্রায় ২৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। 

ক্ষতির শিকার মাছ চাষীর নাম শ্রী সুকমল সরকার ভক্ত। তিনি আলীগ্রামের বাসিন্দা। 

সুকমল সরকার জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে আলীগাঁও কোচ পুকুর নামে একটি সরকারি পুকুর লীজ নিয়ে দেশীয় বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতের কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা ওই পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। এতে পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠে। শুক্রবার সকালে স্থানীয়রা পুকুরে মাছ ভাসতে দেখে মাছ চাষী সুকমল সরকারকে খবর দেন। খবর পেয়ে সুকমল ও তার পরিবারের লোকজন ছুটে গিয়ে পুুকুরে মাছ ভাসতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন। 

তিনি বলেন, ৩ একর ৬০ শতাংশের এ বিশাল পুকুরে বিষ প্রয়োগে অন্তত ২৫ লক্ষাধিক টাকার মাছ ক্ষতি হয়েছে। মাছচাষ করাকালে বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় কিছু লোকজন হুমকি-ধুমকি দিয়ে আসছিল। ওই বিষয়ে থানায় দুটি সাধারণ ডায়েরিও করা আছে। এর আগেও অন্য একটি পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধন করা হয়েছিল। 

জানা গেছে, গত ২০১৩ সালে সুকমলের ছোট ভাই মাধাই চন্দ্রকে অপহরণ করা হয়েছিল। এরপর তাকে হত্যার পর লাশ বস্তাবন্দি করে পুকুরে ফেলে যায় দৃর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় সুকমল বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা করেন। 

মাছ চাষী সুকমল জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরেই এমন ঘটনা ঘটতে পারে। ওই হত্যা মামলার পর থেকে এরপর থেকে তার ক্ষতি করতে পেছনে শত্রুতা লেগেই আছে। 

পুকুরের পাহারাদার শফিকুল ও মজিদ জানান, রাতে কখন যে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। সকালে দেখি সব মাছ মরে ভেসে উঠছে। 

এ ব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইজার উদ্দিন বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।       

স্থানীয়রা জানান, সুমকল প্রায় ৩০ বছর আগে বগুড়ার সোনাতলা এলাকা থেকে এসে এখানে বসতবাড়ী গড়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করে আসছেন। সেই থেকে তিনি বিভিন্ন পুকুর লীজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছিলেন। এরপর তিনি কোচ পুকুর নামে একটি সরকারি পুকুর লীজ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত মাছ চাষ করে আসছিলেন। সুকমল সরকার আলীগাঁও মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতিরও দায়িত্ব পালন করে করছেন। এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান এলাকাবাসী।