Joy Jugantor | online newspaper

নওগাঁয় শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের একজনের কারাদণ্ড

নওগাঁ প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ১০:১৩, ২০ মে ২০২২

আপডেট: ১০:১৪, ২০ মে ২০২২

নওগাঁয় শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের একজনের কারাদণ্ড

আদালতের আদেশ: প্রতীকী ছবি

নওগাঁয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় আব্দুল্লাহ আল মামুন (২৮) নামে প্রশ্নফাঁস চক্রের সক্রিয় সদস্য ও পরীক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে এক মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার পরীক্ষা চলাকালীন জেলা প্রশাসন নওগাঁর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাহারুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

এর আগে, জেলা জাতীয় গোয়েন্দো সংস্থা (এনএসআই) এর গোপন তথ্যের ভিত্তিত্বে তাকে আটক করা হয়। আব্দুল্লাহ আল মামুন জেলার পোরশা উপজেলার নিতপুর ইউনিয়নের বিষ্ণপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

জানা গেছে, নওগাঁ সদর উপজেলার জনকল্যাণ মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বেলা ১১ টা থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলছিল। গোপন সংবাদে এনএসআই ওই কেন্দ্রে অভিযান চালিয়ে ২১০ নম্বর কক্ষ থেকে তাকে আটক করে। এসময় তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন, দুইটি সিম ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

আরো জানা যায়, শহরের বাঁঙ্গাবাড়ীয়া মহল্লার ধানসিঁড়িটি ছাত্রাবাসের সামনে মির্জা ছাত্রাবাসের মালিক গোলাম মোস্তফার ছেলে চক্রের মূল হোতা শিক্ষক মাহবুব রায়হান ওরফে রায়হান মির্জা এবং জেলার মহাদেবপুর উপজেলার খোর্দনারায়নপুর গ্রামের আতাব উদ্দিন সরকারের ছেলে সাদ্দাম হোসেনের ওপর নজরদারি রাখা হয়। ওই চক্রের একজনকে আটক করা গেলেও অন্যান্য সদস্যদের সুনির্দিষ্ট অবস্থান বের করতে না পারায় তাদের আটক সম্ভব হয়নি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাহারুল ইসলাম বলেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন অসৎ উদ্দেশ্যে প্রশ্নফাঁস চক্রের অন্যান্য সদস্য কর্তৃক মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে সরবরাহকৃত উত্তরপত্র দেখে উত্তর লেখার জন্য পরীক্ষা শুরুর আগে মোবাইলে নিয়ে হলে প্রবেশ করে। পরবর্তীতে আসামীর বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি আইন ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাশে প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, জেলার ১১ টি উপজেলার ২৮ হাজার ৭১৬ জন চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবেন দুই ধাপে। দ্বিতীয় ধাপে ২৬ টি কেন্দ্রে প্রাথমিকের পরীক্ষায় অংশ নেয় ১৪ হাজার ৫৯১জন প্রার্থী।

Add