Joy Jugantor | online newspaper

জুয়া খেলায় বাধা: স্ত্রীকে হত্যার পর আমগাছে ঝুলিয়ে রাখলেন স্বামী

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:২১, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

জুয়া খেলায় বাধা: স্ত্রীকে হত্যার পর আমগাছে ঝুলিয়ে রাখলেন স্বামী

নিহতের স্বজনদের আহাজারি ও প্রতিবেশীদের ভিড়।

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় স্বামীকে জুয়া খেলায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ আমগাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার বিকেলে ওই উপজেলার নরিনা ইউনিয়নে বাতিয়া পূর্বপাড়া থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত আয়শা খাতুন ওই গ্রামের মো. মোস্তফার স্ত্রী। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী পলাতক।

পুলিশ জানিয়েছে, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার হত্যা মামলা করেছে।

নিহত আয়শা খাতুনের স্বজনরা জাননান, প্রায় ১০ বছর আগে মোস্তফার সঙ্গে আয়শার বিয়ে হয়। বিয়ের পর তার সংসারে কোনো ঝামেলা ছিল না। সম্প্রতি মোস্তফা অনলাইনে জুয়া খেলায় আসক্ত হন। এর জেরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ দেখা দেয়। জুয়া খেলায় বাধা দেন আয়শা। এতে মোস্তফা ক্ষুদ্ধ হয়ে রাতে আয়শাকে মারধর ও শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ বাড়ির পেছনের একটি আমগাছে ঝুলিয়ে রাখেন।

অভিযুক্ত মোস্তফার স্বজনরা জানান, তারা ঘটনার বিষয়ে কিছু জানেন না।

শাহজাদপুর থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।