Joy Jugantor | online newspaper

টবে মিশরীয় মিষ্টি ডুমুরের চাষ পদ্ধতি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:১০, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

টবে মিশরীয় মিষ্টি ডুমুরের চাষ পদ্ধতি

ছবি : সংগৃহীত

ডুমুর মূলত মধ্যপ্রাচ্যের ফল। ডুমুর কে আরবিতে বলা হয়। এটি টবেও লাগানো যায়। ফল কাঁচা অবস্থায় সবুজ রং ধারণ করে। তবে পাকলে ধীরে ধীরে বেগুনি রং ধারণ করে। এই ফল নরম ও মিষ্টি স্বাদের।

ডুমুরের বংশবিস্তার: ডুমুরের বংশবিস্তার করা সবচেয়ে সহজ ও ভাল পদ্ধতি হলো কাটিং। কাটিং পদ্ধতিতে বংশবিস্তার এর সফলতার হার বেশি থাকে। কেননা কাটিং করার এক মাসের মধ্যে চারা আমুল টবে লাগানোর উপযুক্ত হয়। ডুমুরের কাটিং করা চারা টবে লাগানোর ৪-৫ মাসের মধ্যে ফল ধরে।

মিশরীয় ডুমুর এর চাষ পদ্ধতি: মিশরীয় ডুমুরের চারা লাগানোর জন্য ১২-২০ ইঞ্চি মাটির টব বা কালার ড্রাম সংগ্রহ করতে হবে। ড্রামের তলায় ৩-৫ টি ছিদ্র করে নিতে হবে যেন গাছের গোড়ায় পানি জমে না থাকে। ড্রাম বা টবের তলার ছিদ্রগুলো ছোট ছোট ইটের টুকরা দিয়ে বন্ধ করে দিতে হবে।

ড্রাম বা টবের গাছটিকে ছাদের এমন জায়গায় রাখতে হবে যেখানে রোদ সব সময় থাকে। এবার ২ ভাগ বেলে দোআঁশ মাটি, গোবর ১ ভাগ, টিএসপি ২০-৪০ গ্রাম, পটাশ ২০-৪০ গ্রাম এবং হাড়ের গুড়া ২০০ গ্রাম একত্রে মিশিয়ে ড্রাম বা টবে পানি দিয়ে ১০-২০ দিন রেখে দিতে হবে। মাটি যখন ঝুরঝুরে হবে তখন একটি সরল সুস্থ মিশরীয় মিষ্টি ডুমুরের কাটিং চারা উক্ত টব বা ড্রামে রোপণ করতে হবে।

চারাগাছটি কে সোজা করে লাগাতে হবে। সেই সাথে গাছের গোড়ায় মাটি কিছুটা উঁচু করে দিয়ে মাটি হাত দিয়ে চেপে চেপে দিতে হবে। যাতে গাছের গোড়া দিয়ে বেশি পানি ঢুকতে না পারে। একটি সোজা কাঠি দিয়ে গাছটিকে বেঁধে দিতে হবে। চারা লাগানোর পর প্রথম দিকে পানি কম দিতে হবে। আস্তে আস্তে পানি বাড়াতে হবে। লক্ষ্য রাখতে হবে যেন গাছের গোড়ায় পানি জমে না থাকে আর বেশি শুকিয়েও না যায়।

ডুমুর চাষের ক্ষেত্রে পরিচর্যা: অন্যান্য ফল গাছের তুলনায় ডুমুর গাছে খুব দ্রুত ফল ধরে। একটি ডুমুর এর কাটিং চারা লাগানোর ৪/৫ মাস পর থেকেই ফল দিতে শুরু করে। তাই গাছ লাগানোর ২-৩ মাস পর থেকেই টবের গাছ কে নিয়মিত অল্প অল্প করে সরিষার খৈল পচা পানি দিতে হবে। সে অনুযায়ী ১০-১৫ দিন পরপর সরিষার খৈল পচা পানি প্রয়োগ করতে হবে।

সরিষার খৈল গাছে দেওয়ার কমপক্ষে ১০ দিন আগেই পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরে সে পচা খালের পানি পাতলা করে গাছের গোড়ায় দিতে হবে। ১ বছর পর টবের আংশিক মাটি পরিবর্তন করে দিতে হবে। ২ ইঞ্চি প্রস্থে এবং ৬ ইঞ্চি গভীরে শিকড়সহ মাটি ফেলে দিয়ে নতুন সার মিশ্রিত মাটি দিয়ে তা ভরে দিতে হবে।

টবের মাটি পরিবর্তনের কাজটি সাধারণত শীতের আগে ও বর্ষার শেষে করাই ভালো। টব বা ড্রামের মাটি ১০-১৫ দিন পর পর কিছুটা খুঁচিয়ে দিতে হবে।