Joy Jugantor | online newspaper

নিরাপদ সবজি চাষে প্রয়োজন হলুদ আঠালো ফাঁদ 

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:২১, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

নিরাপদ সবজি চাষে প্রয়োজন হলুদ আঠালো ফাঁদ 

কৃষকদের হলুদ আঠালো ফাঁদের ব্যবহার দেখানো হচ্ছে।

নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব চাষ পদ্ধতিতে পোকা হলুদ আঠালো ফাঁদের ব্যবহার বাড়ছে। বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার কৃষকদের এই পদ্ধতি ব্যবহার জনপ্রিয় করতে কৃষি দপ্তর নিয়মিত প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। 

শিবগঞ্জ কৃষি অফিস জানায়, হলুদ আঠালো ফাঁদ মূলত বিভিন্ন শোষক পোকা বিশেষ করে জাব পোকা, সাদা মাছি ও অন্যান্য শোষক পোকা দমনে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন প্রকার পোকার মথ এ ফাঁদে পড়ে মারা যায়। একই সাথে এই ফাঁদ পোকার উপস্থিতি ও পরিমাণ বুঝতেও সমানভাবে কাজ করে।

হলুদ আঠালো ফাঁদ হচ্ছে পুরোপুরি পরিবেশবান্ধব। এ পদ্ধতির ব্যবহার করলে ফসলের জমিতে কোন কীটনাশক লাগে না। এতে ফসলে রাসায়নিক ক্ষতির ঝুঁকি কমে যায়। এ জন্য হলুদ আঠালো ফাঁদকে নিরাপদ চাষ পদ্ধতি বলা হয়। 

ফসলের ক্ষেতে যখন আঠা মিশ্রিত হলুদ শিট বা হলুদ কালারের স্টিকি ট্র্যাপ টাঙিয়ে দেয়া হয় তখন সাদা মাছি ও শোষক পোকা হলুদ রঙে আকৃষ্ট হয়। এই বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে হলুদ আঠালো ফাঁদ তৈরি করা হয়।

শিবগঞ্জ উপজেলায় বিষমুক্ত নিরাপদ সবজি উৎপাদন নিয়ে সরকারি একটি প্রকল্পে কাজ করছেন উপ-সহকারী  কৃষি অফিসার মো. সাইফুর রহমান। তিনি বলেন, প্রথম দিকে এই ফাঁদের ব্যবহার সীমিত পরিসরে হলেও এখন কৃষকদের কাছে মাঠ পর্যায়ে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এই ফাঁদের ব্যবহার। সে কথা চিন্তা করে বেশ কয়েকটি কোম্পানি বাজারে হলুদ ফাঁদ নিয়ে এসেছে। কোম্পানি ভেদে প্রতিটি ফাঁদের মূল্য ৪০ থেকে ৫০ টাকা।

উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের রহবল ব্লকে কর্মরত এই কর্মকর্তা জানান, সবজি চাষে প্রতি বিঘা জমিতে ১০ থেকে ১৫ টি হলুদ আঠালো ফাঁদ লাগালেই হয়। আমরাও বিভিন্ন বৈঠকে কৃষকদের মাঝে নিয়মিত হলুদ আঠালো ফাঁদের ব্যবহার ও গুরুত্ব নিয়ে নিয়মিত প্রচার করছি।